Home রাজনীতি জমিয়তের জরুরী আমেলায় মুফতী ওয়াক্কাসকে দল থেকে বহিস্কার

জমিয়তের জরুরী আমেলায় মুফতী ওয়াক্কাসকে দল থেকে বহিস্কার

0
SHARE
পল্টনস্থ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে গতকাল জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের আমেলা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। -উম্মাহ।

দলীয় শৃঙ্খলায় ফিরিয়ে আনার অনেক চেষ্টার পরও দলের শীর্ষ নেতৃবৃন্দের আহবানে সাড়া না দিয়ে মারাত্মকভাবে দলীয় শৃঙ্খলা বিরোধী কার্যক্রমে জড়িয়ে পড়ায় মুফতি ওয়াক্কাসকে চূড়ান্তভাবে দল থেকে বহিস্কার করেছে জমিয়তের উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ। গতকাল (১০ জানুয়ারি) বুধবার পল্টনস্থ দলীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে তাকে চূড়ান্তভাবে দল থেকে বহিস্কার করার কথা সাংবাদিকদেরকে জানানো হয়।

এর আগে জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের কার্যকরি পরিষদের এক জরুরী বৈঠক দলটির সভাপতি খলিফায়ে মাদানী আল্লামা আব্দুল মোমিন শায়খে ইমামবাড়ির সভাপতিত্বে পল্টনস্থ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকের মুফতি ওয়াক্কাস এর দলীয় শৃঙ্খলা বিরোধী নানা কার্যক্রম সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা-পর্যালোচনা হয় এবং তাকে বার বার সতর্ক করাসহ দলের শৃঙ্খলায় ফিরিয়ে আনার নানা চেষ্টার কথাও উপস্থাপন করা হয়।

গতকালকের জরুরী আমেলার (কার্যকরী পরিষদ)এর বৈঠকে দলের সাবেক সহসভাপতি মুফতি মুহাম্মদ ওয়াক্কাসকে বার বার দলীয় শৃঙ্খলা মারাত্মকভাবে লঙ্ঘনের অভিযোগে সর্বসম্মতিক্রমে দল থেকে বহিস্কার করা হয়। বৈঠকে কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ একমত পোষণ করেন যে, মুফতি মুহাম্মদ ওয়াক্কাস বাইরের কারো দ্বারা প্রলুব্ধ হয়ে তাদের এজেন্ডা বাস্তবায়নের অসৎ উদ্দেশ্য নিয়ে হক্কানী উলামায়ে কেরামের ঐতিহ্যবাহী রাজনৈতিক দল জমিয়তে উলামায়ে ইসলামকে ধ্বংসের ষড়যন্ত্রে প্রকাশ্যে অপতৎপরতায় লিপ্ত হয়েছেন।

বৈঠকে বলা হয়, গত ৯ ডিসেম্বর ২০১৭ইং তারিখে অনুষ্ঠিত কার্যনির্বাহী পরিষদের সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত মোতাবেক তার কার্যনির্বাহী সদস্যপদ স্থগিত করতঃ কারণ দর্শানোর নোটিশের কোন জবাব তিনি গতকাল পর্যন্ত দেননি। এরপরও তার প্রতি সহানুভূতিশীল হয়ে সংগঠনবিরোধী সকল অপতৎপরতা বন্ধ করার শর্তে সর্বশেষ গত ৭ জানুয়ারী ২০১৮ইং তারিখে সিলেটে অনুষ্ঠিত বৈঠকে দলের সভাপতি শায়েখ আব্দুল মু’মীন শায়েখে ইমাম বাড়ি তাকে দলে ফেরত আনার সিদ্ধান্ত দেওয়ার পরেও মুফতী ওয়াক্কাস উক্ত অপতৎপরতা গতকাল পর্যন্ত বন্ধ করেননি। বরং দলের নামে আজ (বৃহস্পতিবার) জাতীয় প্রেস ক্লাবে সম্পূর্ণ অবৈধভাবে কনভেনশন করার অপতৎপরতা থেকেও বিরত হননি।

এছাড়াও বৈঠকে দলীয় সংবিধান বিরোধী কথিত সুরক্ষা কমিটি গঠনসহ বিভিন্ন দলীয় শৃঙ্খলা বিরোধী কার্যক্রমের অপরাধে সহসভাপতি মাওলানা মনসুরুল হাসান রায়পুরী ও যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা শেখ মুজিবুর রহমানের কার্যকরী পরিষদের (আমেলা) সদস্যপদ স্থগিতপূর্বক কেন তাদের সাধারণ সদস্যপদ বিলুপ্ত করা হবে না; মর্মে নোটিশ প্রদানেরও সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়।

জমিয়তের উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের গতকালকের জরুরী আমেলা (কার্যকরী কমিটি)এর বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব বাংলার মাদানী খ্যাত আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী, সহসভাপতি মাওলানা জহিরুল হক ভূঁইয়া, মাওলানা আব্দুর রব ইউসুফী, মাওলানা জুনায়েদ আল-হাবীব, সাংগঠনিক সম্পাদক আল্লামা উবায়দুল্লাহ ফারুক, যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মঞ্জুরুল ইসলাম আফেন্দী, সহকারী মহাসচিব মাওলানা আব্দুল বছীর, মাওলানা আতাউর রহমান কোম্পানীগঞ্জী, সহসংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা মতিউর রহমান গাজীপুরী, মাওলানা মাহবুবুল্লাহ, মাওলানা খলিলুর রহমান, মাওলানা শাহজালাল, অর্থ-সম্পাদক মুফতী মুনির হোসাইন কাসেমী, সাহিত্য সম্পাদক মাওলানা ফয়যুল হাসান খাদিমানী, সমাজ সেবা সম্পাদক আতিকুজ্জামান, প্রচার সম্পাদক মাওলানা জয়নুল আবেদীন, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা ফেরদাউসুর রহমান, যুববিষয়ক সম্পাদক মাওলানা শরফুদ্দীন ইয়াহইয়া কাসেমী, নির্বাহী সদস্য মাওলানা জিয়াউল হক কাসেমী, মাওলানা জয়নুল আবেদীন, মুফতী আফজাল হোসাইন, মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস, মুফতী হাসান ফারুক, মাওলানা শরীফ মুহাম্মদ ইয়াহইয়া, মাওলানা জামিল আহমদ আনসারী, মাওলানা খলিলুর রহমান, মাওলানা বশির আহমদ, হাফেজ কবির আহমদ, মাওলানা আনোয়ারুল ইসলাম, মাওলানা হুসাইন আহমদ, মাওলানা মুজিবুর রহমান, মাওলানা আব্দুল জলীল, মাওলানা ইমদাদুল্লাহ, মাওলানা রাকিবুল ইসলাম, মুফতী তৈয়ব আল হোসাইনী, মাওলানা শিব্বীর আহমদ প্রমুখ ।

উল্লেখ, বাদ আসর দলীয় কার্যালয়ে সাংবাদিক সম্মেলনের মাধ্যমে জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের কার্যকরি পরিষদের গৃহিত সিদ্ধান্তাবলী গণমাধ্যম কর্মীদেরকে আনুষ্ঠানিকভাবে জানিয়ে দেওয়া হয়। সাংবাদিক সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন দলের মহাসচিব আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী।

তিনি দলের সকল নেতা-কর্মীকে কোনরূপ অপপ্রচার ও অপতৎপরতায় বিভ্রান্ত না হয়ে দলীয় শৃঙ্খলার প্রতি আনুগত্যশীল হয়ে দলের স্বার্থে সর্বোচ্চ শ্রম ও মেধা দিয়ে কাজ করার আহবান জানান। আল্লামা কাসেমী বলেন, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম হক্কানী উলামায়ে কেরামের প্রাণের সংগঠন। জমিয়ত নিয়ে ষড়যন্ত্র করে কেউ সফল হবেন না। বরং ষড়যন্ত্রকারীরাই ইতিহাসের আস্তাকুঁড়ে নিক্ষিপ্ত হবেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here