Home শীর্ষ সংবাদ বিতর্কিত মুরুব্বী মাওলানা সাদ’কে কালই কাকরাইল থেকে ভারত ফিরে যেতে হচ্ছে

বিতর্কিত মুরুব্বী মাওলানা সাদ’কে কালই কাকরাইল থেকে ভারত ফিরে যেতে হচ্ছে

0
SHARE

ভারতের তাবলীগ জামাতের মুরব্বী মাওলানা সাদ কান্ধলভী বিশ্ব ইজতেমায় অংশ নেবেন না। তিনি আগামী কাল কাকরাইল মসজিদে জুমা আদায় করবেন এবং এরপর আগামী কালকের মধ্যেই ভারত ফিরে যাবেন বলে সিদ্ধান্ত হয়েছে। সচিবালয়ে প্রশাসনের সাথে উলামায়ে কেরাম ও কাকরাইলের মুরুব্বীদের আজ বিকেলে দীর্ঘ প্রায় ২ ঘণ্টার বৈঠকে এমন সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে উম্মাহ ২৪ডটকমকে নিশ্চিত করেছেন হেফাজত নেতা মাওলানা ফজলুল করীম কাসেমী।

মাওলানা সাদ নিয়ে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে সর্বশেষ সিদ্ধান্তের কথা সাংবাদিকদেরকে জানাচ্ছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান।

আজ বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের সঙ্গে তাবলিগ জামাতের বিবাদমান দুটি পক্ষের বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত হয় বলে জানা গেছে। বৈঠক শেষে এসব সিদ্ধান্তের কথা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নিজেও সাংবাদিকদেরকে জানান।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, টঙ্গীতে বিশ্ব ইজতেমা যথাসময়ে হবে। শান্তিপূর্ণ ভাবে হবে। যাদের নিয়ে বিতর্ক ছিল তাদের নিয়ে একটা সমঝোতায় তাঁরা এসেছেন। তিনি বলেন, মাওলানা সাদ সুবিধামতো সময় বাংলাদেশ থেকে চলে যাবেন। তিনি ইজতেমায় অংশ নেবেন না। যতক্ষণ পর্যন্ত তিনি বাংলাদেশে থাকবেন, ততক্ষণ পর্যন্ত তিনি কাকরাইলেই অবস্থান করবেন। এই সিদ্ধান্তের পর কাল থেকে আর কেউ সড়কে নামবেন না এবং সবকিছুই শান্তিপূর্ণ ভাবে হবে বলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

উল্লেখ্য, গতকাল বুধবার মাওলানা সাদ এর বিশ্ব ইজতেমায় অংশ নেওয়া ঠেকাতে বিমানবন্দর সড়কে উলামায়ে কেরামের নেতৃত্বে তাবলীগ জামাতের কর্মীরা ব্যাপক বিক্ষোভ করেন। আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার মধ্যে মাওলানা সাদকে বাংলাদেশ থেকে ভারতের দিল্লিতে ফেরত পাঠানোরও দাবি তোলা হয়। নইলে পরিস্থিতি খারাপ হবে বলেও হুমকি দেওয়া হয়। একই দাবীতে আজকেও রাজধানী ঢাকার বিভিন্ন পয়েন্টে বিক্ষোভ সামবেশ ও মিছিল হয়। বায়তুল মুকাররমের উত্তর গেটে সমাবেশ হয়। এছাড়াও কাকরাইল অভিমুখেও মিছিল যাত্রা করলে পথিমধ্যে পুলিশ থামিয়ে দিলে মিছিলকারীরা পল্টন মোড় ও মৎস ভবন এলাকায় অবস্থান নেয়।

আজ সকালে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) পক্ষ থেকে জানানো হয়, বিশ্ব ইজতেমায় অংশ নিচ্ছেন না ভারতের তাবলীগ জামাতের মুরব্বী মাওলানা সাদ কান্ধলভী।

রাজধানীর জামিয়া মাদানীয়া বারিধারার সহকারী পরিচালক ও উত্তরা ১২নং সেক্টর জামে মসজিদের খতীব মাওলানা হাফেজ নাজমুল হাসান উম্মাহ ২৪ ডটকমকে বেলা ১টায় বলেন, বিতর্কিত মাওলানা সাদ এর বাংলাদেশ ত্যাগ ছাড়া পরিস্থিতি শান্ত হবে না। উলামায়ে কেরাম ভ্রান্ত মতবাদে বিশ্বাসী মাওলানা সাদকে বাংলাদেশে বরদাশ করবেন না। তাকে অবশ্যই ফিরে যেতে হবে। তিনি ফিরে গেলে গোটা দেশ শান্ত হয়ে যাবে। তিনি বলেন, আমরা সরকারের কাছে জোর দাবী জানাই, এই বিতর্কিত লোককে যেন অবিলম্বে দেশ ছেড়ে যেতে বাধ্য করা হয়।

এ প্রসঙ্গে উম্মাহ ২৪ডটকমকে বিকেলে জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের অর্থসম্পাদক মুফতী মুনির হোসাইন কাসেমী বলেন, সাদ’কে দিয়ে দেশকে অশান্ত করে তুলবার একটা আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্র চলছে। বিতর্কিত মাওলানা সাদকে আসতে না দেওয়ার জন্য আমরা বার বার সরকারের কাছে দাবী জানিয়েছিলাম। যেহেতু সরকার পরিস্থিতির বাস্তবতা উপলব্ধি করা সত্ত্বেও সাদকে আসতে দিয়েছেন, উদ্ভূত পরিস্থিতির দায় তো সরকারেরই। মাওলানা মুনির হোসাইন কাসেমী আরো বলেন, এই বিতর্কিত লোক (মাওলানা সাদ) নিজেকে তাবলিগের আমির বলে ঘোষণা করেছেন, যা অনেকেই মানেন না। তিনি ইসলামের আক্বীদা-বিশ্বাস বিরোধী অনেক বিতর্কিত বক্তব্য দিয়েছেন। যাতে সাধারণ তাবলীগীরা বিভ্রান্ত হচ্ছেন।

গতকাল বুধবার বেলা ১টার দিকে থাই এয়ারওয়েজের একটি ফ্লাইটে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আসেন মাওলানা সাদ কান্ধলভী। তাঁর এ দেশে আসার প্রতিবাদে বিমানবন্দর এলাকাসহ ঢাকার বিভিন্ন পয়েন্টে ব্যাপক বিক্ষোভ হয়। উলামায়ে কেরামের নেতৃত্বে সাধারণ তৌহিদী জনতাও এসব বিক্ষোভে যোগ দেয়। এতে বিমানবন্দর থেকে টঙ্গী ব্রিজ পর্যন্ত ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে তীব্র যানজট সৃষ্টি হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here