Home শীর্ষ সংবাদ নেপালে মারাত্মক দুর্ঘটনার কবলে ইউএস বাংলা’র বিমান

নেপালে মারাত্মক দুর্ঘটনার কবলে ইউএস বাংলা’র বিমান

0
বেসরকারি বিমান সংস্থা ইউএস বাংলার নেপালগামি বিমানটি আজ বিকেল ৩টায় কাঠমান্ডুতে বিধ্বস্ত হয়েছে। উদ্ধারকাজ চালাচ্ছে নেপালের সেনাবাহিনী। ছবি- ভীম ওঝার টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে নেওয়া।

নেপালের কাঠমান্ডু বিমানবন্দরে ল্যান্ডিংয়ের সময়ে দুর্ঘটনার কবলে পড়ল বাংলাদেশের ইউএস বাংলা’র একটি যাত্রীবাহী বিমান। অবতরণের সময় দুর্ঘটনার মুখে পড়েছে বিমানটি। বিধ্বস্ত বিমানটিতে আগুন ধরে গিয়েছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত যাত্রীদের প্রকৃত অবস্থা জানা না গেলেও বিমানটির যে পরিস্থিতি ছবিতে দেখা যাচ্ছে, তাতে ব্যাপক হতাহতের আশংকা করা যাচ্ছে। হতাহতদের উদ্ধারে কাজ চলছে। বার্তা সংস্থা এএফপির প্রতিবেদনে বলা হয়, বিমানের ধ্বংসাবশেষ থেকে লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। তবে ঠিক কতজন নিহত হয়েছেন তা এখনো জানা যায়নি। এক কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে এএফপি জানায়, আমরা ধ্বংসাবশেষ থেকে আহত নিহতদের বের করছি।

উদ্ধারকাজে যোগ দেয় নেপালের সেনাবাহিনী। মাই রিপাবলিকার টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে নেওয়া ছবি।

সংবাদ সংস্থা রয়টার্স সূত্রের খবর, দুর্ঘটনাগ্রস্ত বিমানটি ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের। এর আগে আজ দুপুর ১২টা ৫১ মিনিটে ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ৭১ জন আরোহী নিয়ে এটি নেপালের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। নেপালে পৌঁছানোর পর স্থানীয় সময় দুইটা ২০ মিনিটে (বাংলাদেশ সময় ৩টা ৫ মিনিট) এটি বিধ্বস্ত হয়। নেপালের কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে নামার আগে সেটি নিয়ন্ত্রণ হারায় বলে জানা গেছে।

বিমানটি কাঠমান্ডু বিমানবন্দরের রানওয়ে স্পর্শ করার আগেই দুর্ঘটনার শিকার হয়। একটি মাঠে ক্র্যাশ ল্যান্ডিং করেছে। ক্র্যাশ ল্যান্ডিং-এর জেরে বিমানটি মারাত্মকভাবে বিধ্বস্ত হয়ে দুমড়েমুছড়ে গিয়ে তাতে আগুন ধরে যায়।

নেপালের ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ ধারণা করছে, অবতরণের সময় যান্ত্রিক গোলযোগের কারণে এই দুর্ঘটনা ঘটেছে। নেপালের পর্যটন মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব সুরেশ আচার্য দেশটির ইংরেজি দৈনিক কাঠমান্ডু পোস্টকে বলেন, এ পর্যন্ত ১৭ জন যাত্রীকে উদ্ধার করে বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়েছে।

ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের মুখপাত্র প্রেম নাথ ঠাকুর বলেন, অবতরণের সময় উড়োজাহাজটিতে আগুন ধরে যায়। পরে বিমানটি পাশের একটি ফুটবল মাঠে গিয়ে পড়ে। -আনন্দবাজার পত্রিকা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.