Home শীর্ষ সংবাদ বাংলাদেশে আবারও ১/১১’র ষড়যন্ত্রের গন্ধ পাওয়া যাচ্ছে: ওবায়দুল কাদের

বাংলাদেশে আবারও ১/১১’র ষড়যন্ত্রের গন্ধ পাওয়া যাচ্ছে: ওবায়দুল কাদের

0

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিদেশে অবস্থানরত বঙ্গবন্ধুর খুনীদের দেশে ফিরিয়ে আনতে কূটনৈতিক প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। তিনি বলেন, এই কূটনৈতিক প্রচেষ্টা সফলও হতে যাচ্ছে।

ওবায়দুল কাদের গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে ইডেন মহিলা কলেজ মিলনায়তনে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন। ইডেন মহিলা কলেজ শাখা ছাত্রলীগ এ আলোচনা সভার আয়োজন করে।

বাংলাদেশে আবারও ১/১১’র ষড়যন্ত্রের গন্ধ পাওয়া যাচ্ছে- এই মন্তব্য করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ওই সময় যারা বি-রাজনীতিকরণ করতে চেয়েছিল, তাদের সহযোগী ছিল মিডিয়ার একটি অংশ। মিডিয়ার সেই অংশটি একটি দলের উসকানিতে এখন শেখ হাসিনার সরকার হটানোর ষড়যন্ত্রে নেমেছে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, সেই মিডিয়া শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে আক্রান্তদের আক্রমণকারী হিসেবে উপস্থাপন করেছে। এমনকি আওয়ামী লীগের যে কর্মীর চোখ নষ্ট হয়ে গেছে, তাকে শিক্ষার্থী হিসেবে উপস্থাপন করে সংবাদ প্রচার করেছে।

বঙ্গবন্ধুর খুনিদের দেশে ফিরিয়ে আনা প্রসঙ্গে সেতুমন্ত্রী বলেন, যে খুনি যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থান করছে, তাকে সরানোর জন্য ট্রাম্প প্রশাসন সবুজ সংকেত দিয়েছে। কানাডায় মৃত্যুদন্ড না থাকায় আইনি জটিলতার কারণে এই মুহূর্তে ওখানে অবস্থানরত খুনিকে আনা যাচ্ছে না।

তবে তিনি বলেন, আরেক দেশে থাকা বঙ্গবন্ধুর এক খুনিকে দেশে ফিরিয়ে আনার ব্যাপারে ৯০ ভাগ অগ্রগতি হয়েছে। ‘আমাদের কূটনৈতিক উদ্যোগ সফল হতে যাচ্ছে।’

খালেদা জিয়ার জন্মদিন পালনের কথা তুলে ধরে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘দেশের রাজনীতিতে কারও কারও আচরণ বঙ্গবন্ধুর হত্যাকান্ডের চেয়েও নৃশংস। এখানেই আমাদের প্রশ্ন রাখা উচিত, স্কুলে, বিবাহে, পাসপোর্টসহ মোট পাঁচটি জন্ম দিবস। এখন তারা জন্মদিন পালন করছে, ফরম্যাট পরিবর্তন করে। তাদের আমরা ঘৃণা করি, ধিক্কার জানাই।’

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ভুয়া জন্মদিন পালন করা একটা পাপ, একটা অপরাধ। বাংলাদেশে এই ধরনের নোংরা দৃষ্টান্ত যারা স্থাপন করেছে, তারাই আজ অগণতান্ত্রিকভাবে সরকার হটানোর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত আছে।

ইডেন কলেজ শাখা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক তাসলিমা আক্তারের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে আওয়ামী লীগের শিক্ষা ও মানবসম্পদ সম্পাদক শামসুন্নাহার চাঁপা ও কেন্দ্রীয় সদস্য মারুফা আক্তার বক্তৃতা করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.