Home জাতীয় বিএনপির মানববন্ধনে ঢাকায় শতাধিক নেতাকর্মী আটক: গাজীপুরে পুলিশের লাঠিপেটা, ৯ জন আটক

বিএনপির মানববন্ধনে ঢাকায় শতাধিক নেতাকর্মী আটক: গাজীপুরে পুলিশের লাঠিপেটা, ৯ জন আটক

0
মানববন্ধন থেকে ফেরার পথে বিএনপির নেতাকর্মীদের ভ্যানে তুলে নিয়ে যায় পুলিশ। ছবি- সংগৃহীত

বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সুচিকিৎসার দাবিতে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বিএনপির মানববন্ধন কর্মসূচি থেকে শতাধিক নেতাকর্মীকে আটক করেছে রমনা থানা পুলিশ। আজ সোমবার দুপুর ১২টার পর মানববন্ধন শেষে রাজধানীর শিল্পকলা মোড় ও বিজয়নগর এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে রমনা জোনের এসি এহসান ফেরদৌস গণমাধ্যম কর্মীদেরকে বলেন, আইনশৃঙ্খলা অবনতির আশঙ্কায় তাদের আটক করা হয়েছে। এর আগে বেলা ১১টার দিকে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি শুরু হয়।

ঘণ্টাব্যাপী এ মানববন্ধনে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, নজরুল ইসলাম খান, মোহাম্মদ শাহজাহান, আব্দুল্লাহ আল নোমান, রুহুল আলম চৌধুরী, শামসুজ্জামান দুদু, আমান উল্লাহ আমান, খায়রুল কবির খোকন, মীর সরফত আলী সপু, সহ-প্রশিক্ষণ বিষয়ক সম্পাদক ড. মোর্শেদ হাসান খান, মোস্তাফিজুর রহমান বাবু, মাদারীপুরের শিবচর উপজেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ইয়াজ্জেম হোসেন রোমানসহ কয়েক হাজার নেতাকর্মী অংশ নেন।

বেলা ১১টায় মানববন্ধন শুরু হওয়ার কথা থাকলেও সকাল ১০টার দিকেই দাঁড়িয়ে যান হাজার হাজার নেতাকর্মী। মানববন্ধনের কর্মসূচি হলেও ব্যাপক লোক সমাগমে এটি সমাবেশে পরিণত হয়।

খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সুচিকিৎসার দাবিতে তিন দিনের কর্মসূচির অংশ হিসেবে আগামী বুধবার একই দাবিতে দুই ঘণ্টার প্রতীকী অনশন কর্মসূচি পালন করবে বিএনপি। ঢাকার রমনা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন প্রাঙ্গণ অথবা গুলিস্তানের মহানগর নাট্যমঞ্চে বুধবার সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত এ প্রতীকী অনশনের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করেছে দলটি।

উল্লেখ্য, এ বছরের ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট্র দুর্নীতির মামলায় খালেদা জিয়াকে ৫ বছর কারাদণ্ড দেন ঢাকার ৫ নম্বর বিশেষ জজ আদালতের বিচারক মো. আখতারুজ্জামান। এর পর থেকে পুরান ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দি আছেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া।

এদিকে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে গাজীপুরে বিএনপির মানববন্ধনে লাঠিপেটা ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করেছে পুলিশ। এ সময় মানববন্ধন থেকে প্রয়াত ব্রি. আ স ম হান্নান শাহের ছেলে শাহ রিয়াজুল হান্নান ও সিটি কাউন্সিলর হান্নান মিয়া হান্নুসহ কমপক্ষে বিএনপির ৯ নেতাকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় জেলা মহিলা দলের সাবেক সভানেত্রী আনোয়ারা বেগমসহ অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। আহতদের বিভিন্ন ক্লিনিকে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

সোমবার বেলা ১১টার দিকে গাজীপুর মহানগর ও জেলা বিএনপির উদ্যোগে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে এ ঘটনা ঘটে। গাজীপুর মহানগর বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক শিল্পপতি মো. সোহরাব উদ্দিন জানান, বিএনপির কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে আমাদের বিপুলসংখ্যক নেতাকর্মীদের নিয়ে বিএনপি কার্যালয়ের সামনে শান্তিপূর্ণভাবে মানববন্ধন করছিলাম। মানববন্ধনের শেষ মুহূর্তে হঠাৎ করে পূর্ব দিক থেকে পুলিশ ফাঁকা গুলি করে মানববন্ধনে অংশ নেয়া নেতাকর্মীদের ওপর অতর্কিত লাঠিপেটা শুরু করে।

মুহূর্তেই নেতাকর্মীরা দিগ্বিদিক ছোটাছুটি করতে থাকেন। এ সময় নগরবাসী ও পথচারীদের মধ্যে অতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। এ সময় পুলিশ প্রয়াত ব্রি. আ স ম হান্নান শাহের ছেলে শাহ রিয়াজুল হান্নান ও সিটি কাউন্সিলর হান্নান মিয়া হান্নুসহ বেশ কয়েকজন নেতাকর্মীকে তুলে নিয়ে যায়।

গাজীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রাসেল শেখ জানান, ওই ঘটনায় পুলিশ ৯ জনকে আটক করেছে। আটককৃতদের মধ্যে শাহ রিয়াজুল হান্নান ও সিটি কাউন্সিলর হান্নান মিয়া হান্নুসহ বাকিদের ভিডিও ফুটেজ দেখে যাচাই-বাছই করে কোর্টে চালান করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.