Home শীর্ষ সংবাদ ইজতেমার নামে কাদিয়ানীদের ঈমানবিধ্বংসী কার্যক্রম বন্ধ করতে হবে: আল্লামা বাবুনগরী

ইজতেমার নামে কাদিয়ানীদের ঈমানবিধ্বংসী কার্যক্রম বন্ধ করতে হবে: আল্লামা বাবুনগরী

0

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব ও হাটহাজারী মাদরাসার সহযোগী পরিচালক আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী বলেছেন, পঞ্চগড়ের আহমদনগরে ‘কথিত মুসলিম নামধারী কাদিয়ানী অমুসলিমদের ‘জাতীয় ইজতেমা’র নামে ঈমানবিধ্বংসী কার্যক্রম বন্ধ করতে হবে ৷ খতমে নবুওয়াত অস্বীকারকারী কাদিয়ানীরা অমুসলিম, কাফের। মুসলিম নাম ধারণ করে ৯০% মুসলমানের দেশে তাদের ঈমানবিধ্বংসী কোন কার্যক্রম চলতে দেয়া হবে না।

গতকাল (৬ ফেব্রুয়ারী) বুধবার ঢাকার বারডেম জেনারেল হাসপাতাল থেকে সংবাদ মাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী এসব কথা বলেন।

আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী আরো বলেন, মানব জাতির হেদায়াতের জন্য যুগে যুগে আল্লাহ তা’য়ালা নবী-রাসূল প্রেরণ করেছেন। নবী রাসুলগণের মধ্যে সর্বশ্রেষ্ঠ এবং সর্বশেষ নবী ও রাসূল হচ্ছেন হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম। ঈমানদার হওয়ার জন্য আকীদায়ে খতমে নবুওয়াত তথা মুহাম্মাদুর রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম সর্বশেষ নবী ও রাসুল হওয়ার বিশ্বাস স্থাপন করতে হবে।

তিনি বলেনন, প্রতিটি মুসলমানের জন্য আকিদায়ে খতমে নবুয়াত ঈমানের অবিচ্ছোদ্য অংশ ৷ খতমে নবুয়াতে বিশ্বাসী হওয়া ছাড়া মুসলমান হওয়া যায় না ৷ কাদীয়ানিরা খতমে নবুয়াতকে অস্বীকার করে তাই তারা কাফের ৷ মসজিদ পৃথিবীর সর্বোৎকৃষ্ট জায়গা, মুসলিম উম্মাহর ইবাদতের পবিত্র স্থান ৷ কাদিয়ানিরা কাফের, কাফেরদের কোন মসজিদ হতে পারে না ৷ নামায, রোজা, হজ্জ্ব, যাকাত ইত্যাদি মুসলমানদের ধর্মীয় পরিভাষা ৷ কাদিয়ানিরা কাফের তাই মুসলমানদের কোন পরিভাষা ব্যবহার করে তারা তাদের ভ্রান্ত মতাদর্শ প্রচার করতে পারে না ৷ এটা ইসলাম ধর্মের অবমাননার শামিল।

তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশ সংখ্যাগরিষ্ঠ মুসলমানের দেশ ৷ এ দেশের মুসলমানগণ বিশ্বনবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কে নিজেদের প্রাণের চাইতেও বেশি মুহাব্বাত করেন ৷ বিশ্বনবী সা. এর রিসালতকে অস্বীকারকারী কাদিয়ানি অমুসলিমদের আস্ফালন এদেশের ধর্মপ্রাণ তৌহিদী জনতা মেনে নেবে না।

আল্লামা বাবুনগরী বলেন, বাংলাদেশ গণতান্ত্রিক দেশ ৷ গণতান্ত্রিক অধিকার হিসেবে এদেশের হিন্দুরা হিন্দু নামে, বৌদ্ধরা বৌদ্ধ নামে এবং খ্রীষ্টানরা খ্রীষ্টান নামে তাদের ধর্মীয় রীতি নীতি পালন করছে। কিন্তু কাদিয়ানি অমুসলিমরা “মুসলমান নামধারণ করে সরলমনা সাধারণ মুসলমানদেরকে ধোঁকা দিয়ে ঈমানবিধ্বংসী কার্যক্রম পরিচালনা করছে। যা ইসলাম ধর্মের নামে অপপ্রচারের শামিল। এটা কখনো মেনে নেয়া যায় না।

তিনি দাবি জানিয়ে বলেন, অনতি বিলম্বে পঞ্চগড়ে অনুষ্ঠিতব্য কাদিয়ানিদের তথাকথিত জাতিয় ইজতেমা’সহ বাংলাদেশে তাদের ঈমানবিধ্বংসী সকল কার্যক্রম বন্ধ করতে হবে ৷ অন্যথায় আকিদায়ে খতমে নবুয়াত রক্ষার্থে এদেশের লক্ষ নবীপ্রেমিক তৌহিদী জনতা অমুলিম কাদিয়ানিদের বিরুদ্ধে দূর্বার আন্দোলন গড়ে তুলতে বাধ্য হবে।

তিনি বলেন, পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে কাদিয়ানিদেরকে রাষ্ট্রীয়ভাবে অমুলসলিম ঘোষণা করা হয়েছে। ৯০% মুসলিম অধ্যুষিত রাষ্ট্র বাংলাদেশেও কাদিয়ানীদেরকে রাষ্ট্রীয়ভাবে অমুসলিম ঘোষণা করার জোর দাবী জানান হেফাজত মহাসচিব আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী। -বিজ্ঞপ্তি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.