Home আন্তর্জাতিক ‘ঘুমন্ত বাঘকে চিমটি কেটো না, হা করলে সব পেটে চলে যাবে’: মাওলানা...

‘ঘুমন্ত বাঘকে চিমটি কেটো না, হা করলে সব পেটে চলে যাবে’: মাওলানা সিদ্দিকুল্লাহ

0
মাওলানা সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরী। - ফাইল ছবি।

উম্মাহ ডেস্ক: পশ্চিমবঙ্গের জনশিক্ষা প্রসার, গ্রন্থাগার পরিসেবা মন্ত্রী ও জমিয়তে উলামায়ে হিন্দের রাজ্য সভাপতি মাওলানা সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরী বলেছেন, ‘ভারত আমাদের। পৃথিবীর কোনও শক্তি নেই যে আমাদের ক্ষতি করতে পারে।’ গত বুধবার বর্ধমান জেলার গলসীতে জমিয়তের এক সমাবেশে ভাষণ দেয়ার সময় তিনি ওই মন্তব্য করেন।

আরএসএস-বিজেপির সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘দেশ ভক্তি, দেশ প্রেম আমাদের রক্তে মিশে রয়েছে, আরএসএসের কাছ থেকে তা শিখতে হবে না। জন্মসূত্রে আমরা ভারতীয়, পৈতৃক সূত্রে ভারতীয় এবং উত্তরাধিকার সূত্রে ভারতীয়। ভারতে ছিলাম, আছি এবং ইনশাআল্লাহ্‌ আমরা থাকবই, থাকব। পৃথিবীর কোনও ক্ষমতা নেই যে আমাদের পশম নড়াতে পারবে! যারা ট্যারা-বাঁকা চোখ দেখাচ্ছেন, আমরা তাঁদের সাবধান করে দিচ্ছি, অনুরোধ নয়, ঘুমন্ত বাঘকে চিমটি কেটো না। ঘুমন্ত বাঘকে কামড় দিও না। কারণ হা করলে সব পেটে চলে যাবে!’ 

আরএসএসকে টার্গেট করে তিনি বলেন, ‘আরএসএস তোমরা নোংরা হিন্দু। আরএসএস মনে করে দেশ থেকে তাড়িয়ে দেবে? এত মায়ের দুধ খেয়েছে তাঁরা! ভয় দেখাচ্ছে? যারা ব্রিটিশদের তাড়িয়েছে, সেই জমিয়তে উয়ামায়ে হিন্দ এখনও বেঁচে আছে তাঁরা যেন মনে রেখে দেয়।’

তিনি বলেন, ‘একথা দায়িত্ব নিয়ে বলছি, ভালো করে শুনবেন, আরএসএস যতই চিৎকার করুক, ভারতবর্ষ কোনোদিনই হিন্দু রাষ্ট্র হবে না ইনশাআল্লাহ্‌। আমরা তা হতে দেবো না। কান খুলে তাঁরা শুনে নিন। হিন্দু রাজ্য হবে? এটা কী মগের মুল্লুক? একইভাবে আমরা দ্বিতীয় পাকিস্তানও হতে দেবো না। আমরা এর ঘোরতর বিরোধী।’

তিনি বলেন, ‘ইসলাম ধর্ম অন্য ধর্মের সম্মানের শিখিয়েছে। কিন্তু তাই বলে আমার মসজিদ, মাদ্রাসা গুঁড়িয়ে দেবে, আমরা চুড়ি পরে থাকবে এটা যেন কেউ না ভাবে।  আমরা ধৈর্য ধরে আছি ঠিকই।  ‘সবর’ করছি ঠিকই। কিন্তু মসজিদের মিনার ভেঙে দেবে, দরজা ভেঙে দেবে আর বিধবার মত কেউ বসে থাকবে এদিন যেন দেখতে না হয়।’

বর্ধমান জেলা জমিয়তে উলামা হিন্দের ডাকে গলসীতে ওই সমাবেশে মাওলানা  সিদ্দীকুল্লাহ চৌধুরী, কোলকাতার ঐতিহ্যবাহী রেড রোডের ইমাম-এ-ঈদাইন ক্বারী ফজলুর রহমান, জমিয়তের রাজ্য সহ-সভাপতি মাওলানা মনজুর আলম, রাজ্য সহ-সভাপতি মাওলানা আবুল কাসেম, রাজ্য সাধারণ সম্পাদক  মুফতি আব্দুস সালাম, রাজ্য সম্পাদক মুফতি রফিকুল ইসলাম, বর্ধমান জেলা জমিয়তের সভাপতি মাওলানা ইমদাদুল্লাহ চৌধুরী, জেলা সম্পাদক  মাওলানা ইমতিয়াজ আলী, বীরভূম জেলা জমিয়তের সভাপতি মাওলানা আনিসুর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। সূত্র- পার্সটুডে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.