Home আঞ্চলিক তামাবিল নলজুরী ইমদাদুল উলুম মাদ্রাসার ইসলাহী জলসায় মাওলানা খালেদ সাইফুল্লাহ আইয়ূবী

তামাবিল নলজুরী ইমদাদুল উলুম মাদ্রাসার ইসলাহী জলসায় মাওলানা খালেদ সাইফুল্লাহ আইয়ূবী

0

সিলেট তামিবিল-এর নলজুরী জামিয়া ইসলামিয়া ইমদাদুল উলুম মাদ্রাসা’র বার্ষিক ইসলাহী জলসা গতকাল বুধবার আখেরী মুনাজাতের মাধ্যমে সম্পন্ন হয়েছে। এতে ইসলাহী বয়ান পেশ করেছেন বিশিষ্ট জনপ্রিয় ইসলামী ব্যক্তিত্ব মুফাসসীরে কুরআন ও সীরাত গবেষক হযরত মাওলানা খালেদ সাইফুল্লাহ আইয়ূবী।

নলজুরী জামিয়া ইসলামিয়া ইমদাদুল উলুম মাদ্রাসা’র প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক তরুল আলেম ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস ইসলাহী মাহফিলে সভাপতিত্ব করেন। ইসলাহী জলসায় প্রায় পাঁচ শতাধিক উলামায়ে কেরাম, মাদ্রাসা ছাত্র ও স্থানীয় মুসল্লী যোগদান করেন। বাদ যোহর থেকে শুরু হয়ে বিকেল ৫টা পর্যন্ত ইসলাহী জলসায় মাওলানা খালেদ সাইফুল্লাহ আইয়ূবী আখেরী নবী হযরত রাসূলুল্লাহ (সা.)এর জীবনী ও সীরাতের উপর গুরুত্বপূর্ণ বয়ান পেশ করেন।

বয়ানে মাওলানা খালেদ সাইফুল্লাহ আইয়ূবী বলেন, পৃথিবীতে শান্তি, নিরাপত্তা ও ইনসাফ প্রতিষ্ঠা, মানুষের জীবনের সুখ-সমৃদ্ধি অর্জন এবং সকল প্রকার অশান্তি, অরাজকতা ও দুর্ভোগ থেকে আমাদের সকলেরই মুক্তির জন্য কোরআন-সুন্নাহর আলোকে জীবন গড়তে হবে।

মাওলানা উপস্থিত শ্রোতাদের উদ্দেশ্যে  বলেন, আপনারা আজ থেকে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হোন প্রকাশ্য-অপ্রকাশ্য সকল প্রকারের পাপ, অনাচার, দুর্নীত, চুরি, ডাকাতি, প্রতারণা, অন্যের অধিকার হরণ ও জুলুম করবেন না। শিরক, বিদআত ও ধর্মবিরোধী কাজ থেকে বিরত থাকবেন। আল্লাহর হুকুম ও রাসূলের তরিকা মেনে চললে গোটা পৃথিবীর মানুষ শান্তিতে বসবাস করতে পারবেন।
মাওলানা খালেদ সাইফুল্লাহ বলেন, ইসলামের পাঁচটি স্তম্ভ। এ ফরজ পাঁচ স্তম্ভ যথাযথভাবে না মানলে মুসলমানদের ঈমান-আকিদা দুর্বল হয়ে পড়ে। ঈমান-আকিদা রক্ষার প্রচেষ্টা ও এর চর্চা অব্যাহত না থাকলে জনগণকে নানামুখী খোদায়ী আজাব ও গজবে পতিত হতে হয়। আর যারা নাস্তিকতার নামে ইসলামের পাঁচ স্তম্ভ এবং ইসলামী মূল্যবোধ ও কোরআন-সুন্নাহের বিরুদ্ধে আক্রমণাত্মক কথা বলে, তারাই হচ্ছে ইসলামবিদ্বেষী। এরাই আল্লাহ ও তাঁর রাসূল (সা.)-এর নামে জঘন্য ভাষায় কুৎসা ও মিথ্যাচার রটনা করতে দ্বিধা করে না। মূলতঃ এসব হীন ও স্থূল নাস্তিকতা চর্চাকারী ইসলামবিদ্বেষীদের বিরুদ্ধেই উলামায়ে কেরাম সব সময় সতর্ক থাকতে বলেন।

এর আগে সকাল ১১টায় মাওলানা খালেদ সাইফুল্লাহ আইয়ূবী নলজুরী জামিয়া ইসলামিয়া ইমদাদুল উলুম মাদ্রাসা ক্যাম্পাসে পৌঁছলে তাঁকে আন্তরিক অভ্যর্থনা জানান মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক তরুল আলেম ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস।

সালাম ও কুশল বিনিময় শেষে মাওলানা খালেদ সাইফুল্লাহ মাওলানা আব্দুল কুদ্দুসের কাছে প্রতিষ্ঠানটি সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি মাদরাসার সার্বিক পরিস্থিতি ও পাঠদান কার্যক্রম সম্পর্কে সংক্ষিপ্ত বিবরণ তুলে ধরেন। মাওলানা আইয়ূবী গভীর মনোযোগের সাথে শোনেন এবং সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন। তিনি দরস পরিচালনা সম্পর্কে উপস্থিত শিক্ষকদেরকে এ সময় কিছু দিকনির্দেশনা ও উপদেশ দেন। এ সময় তিনি মাদ্রাসার পরিদর্শন বইয়েও মন্তব্য লিখেন।

এরপর মাওলানা আইয়ূবী জামিয়া ইসলামিয়া ইমদাদুল উলূম মাদ্রাসা ক্যাম্পাস, শ্রেণী কক্ষ ও ছাত্রবাস ঘুরে দেখেন এবং ছাত্রদের সাথেও কথা বলেন। তিনি ছাত্রদেরকে গভীর অধ্যবসায়ের সাথে কিতাব মুতালায়া, দৈনন্দিন পাঠ আয়ত্ব, শৃঙ্খলা বজায় রেখে চলা, সুন্নাতের উপর পরিপূর্ণ আমল এবং প্রতিষ্ঠানের আইন ও বিধি মেনে চলতে তাগিদ দেন।

এরপর মাওলানা আইয়ূবী তাঁর সম্মানে মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস এর দেওয়া জাফলং ভিউ রেস্টুরেন্টের এক আডম্বরপূর্ণ ভোজ সভায় যোগদান করেন এবং দুপুরের খাবার গ্রহণ করেন। নানান উপাদেয় ডিশ ও ফলফলাদি দিয়ে সাজানো ছিল ভোজনপর্ব। মাওলানা আব্দুল কুদ্দুসের আন্তরিকতাপূর্ণ আতিথেয়তায় মাওলানা আইয়ূবী গভীর সন্তোষ ও কৃতজ্ঞতা জানান। -বিজ্ঞপ্তি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.