Home আঞ্চলিক লাখো মুসল্লীর অংশগ্রহণে মুফতী আবুল কালাম জাকারিয়া (রাহ.)এর জানাযা ও দাফন সম্পন্ন

লাখো মুসল্লীর অংশগ্রহণে মুফতী আবুল কালাম জাকারিয়া (রাহ.)এর জানাযা ও দাফন সম্পন্ন

1
- সংগৃহীত ছবি।

সিলেট দরগাহ মাদ্রাসার মুহতামিম ও শায়খুল হাদীস প্রবীণ মুফতি আবুল কালাম জাকারিয়ার নামাযে জানাযায় ধর্মপ্রাণ মুসল্লীর ঢল নামে। আজ মঙ্গলবার সকাল ১১টায় সিলেট সরকারি আলীয়া মাদ্রাসা ময়দানে তাঁর নামাযে জানাযায় লাখো মুসল্লী অংশগ্রহণ করেন। শ্রদ্ধা, ভালোবাসা আর চোখের জলে শেষ বিদায় জানান সিলেটের প্রখ্যাত এই আলেমকে।

জানাযায় ইমামতি করেন দরগাহ মাদ্রাসার নবনির্বাচিত মুহতামিম ও শায়খুল হাদীস মুফতি মুহিব্বুল হক গাছবাড়ি। জানাযা শেষে প্রবীণ এই আলেমকে সিলেট দরগাহ মাদ্রাসার হিফজখানার পাশ্বর্বতী কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে।

নির্ধারিত সময়ের পূর্বেই মুফতি আবুল কালাম জাকারিয়ার নামাযে জানাযায় অংশ নিতে আলীয়া মাদ্রাসা মাঠ কানায় কানায় পরিপূর্ণ হয়ে উঠে। জানাযায় দরগাহ মাদ্রাসার ছাত্র-শিক্ষক, সিলেটের আলেম সমাজ, সাধারণ ধর্মপ্রাণ মুসল্লীদের উপস্থিতিতে লোকারণ্য হয়ে উঠে। এসময় মাদ্রাসা মাঠে জায়গা না পেয়ে অনেকেই রাস্তায় দাঁড়িয়ে যান। আলীয়া মাদ্রাসা মাঠ থেকে চৌহাট্টা পয়েন্ট পর্যন্ত মুসল্লীরা অবস্থান নেন। 

জানাযার পূর্বে মরহুমের জীবনী সম্পর্কে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন আযাদ দ্বীনি এদারায়ে তালীম বাংলাদেশ শিক্ষাবোর্ডের সভাপতি, জামিয়া মাদানিয়া আঙ্গুরা মোহাম্মদপুরের মহাপরিচালক ও সিলেট জেলা জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের সভাপতি আল্লামা শায়খ জিয়া উদ্দিন, বোর্ডের সাধারণ সম্পাদক প্রিন্সিপাল মাওলানা আব্দুল বছির, দরগাহ মাদ্রাসার নবনির্বাচিত মুহতামিম মুফতি মুহিব্বুল হক গাছবাড়ি, সিলেট সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরান, সাবেক এমপি শফিকুর রহমান চৌধুরী, ভার্থখলা মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল হাফিজ মাওলানা মজদুদ্দিন আহমদ, জামেয়া দারুল কোরআন সিলেটের প্রিন্সিপাল সাবেক এমপি শাহীনুর পাশা চৌধুরী, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আশফাক আহমদ, রেঙ্গা মাদ্রাসার মুহতামিম মাওলানা মুহিউল ইসলাম বুরহান, দরগাহপুর মাদ্রাসার মুহতামিম আল্লামা নুরুল ইসলাম খান সুনামগঞ্জী প্রমুখ

উল্লেখ্য, গতকাল সোমবার বিকেল ৪টা ৫৫ মিনিটের সময় মাদ্রাসায় আসরের নামাজের অযূ করার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন মুফতি আবুল কালাম জাকারিয়া। হঠাৎ বুকে ব্যথা অনুভব করলে সাথে সাথে তাকে ওসমানী হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে তিনি ইন্তেকাল করেন।

ইন্তিকালের সময় তাঁর বয়স হয়েছিল ৬৩ বছর। তিনি স্ত্রী, ৩ ছেলে ও ৩ মেয়েসহ অসংখ্য ছাত্র, ভক্ত ও গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। তাঁর মূল বাড়ি সুনামগঞ্জের বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার ভাগুয়া গ্রামে। বর্তমানে তিনি দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার গাজীনগর গ্রামে বসবাস করছিলেন। মুফতি আবুল কালাম যাকারিয়া ১৯৫৬ সালের ১৫ই মার্চ সুনামগঞ্জ জেলার বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার ফতেহপুর ইউনিয়নের ভাগুয়া গ্রামে সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি খলিফায়ে মাদানী শায়খ আব্দুল হক গাজীনগরী (রাহ.)এর জামাতা ও আল্লামা মাহমুদুল হাসানের অন্যতম শীর্ষ খলিফা।