Home বিনোদন ও সংস্কৃতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রাম্প কন্যাকে নিয়ে হাস্যরস ও সমালোচনার ঝড়!

সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রাম্প কন্যাকে নিয়ে হাস্যরস ও সমালোচনার ঝড়!

1

ডেস্ক রিপোর্ট: গত সপ্তাহে জাপানের ওসাকাতে অনুষ্ঠিত জি-২০ শীর্ষ সম্মেলনে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প তার কন্যা ইভাঙ্কা ট্রাম্পকে তার সঙ্গে নিয়ে যাওয়ায় তীব্র সমালোচনার শিকার হন। হোয়াইট হাউসের উপদেষ্টা ইভাঙ্কাকে বিশ্ব নেতাদের সামনে এভাবে উপস্থাপিত করায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ও তার কন্যাকে নিয়ে বিশ্বব্যাপী নেটিজেনরা নিন্দার ঝড় বইয়ে দিচ্ছেন। সারা বিশ্বের শীর্ষ নেতাদের পাশাপাশি ইভাঙ্কাকে ছবি তুলতেও দেখা গিয়েছে। তিনি না কোন নির্বাচিত কর্মকর্তা, না তিনি প্রেসিডেন্ট ক্যাবিনেটের কোন সদস্য।

ফ্রেঞ্চ রাষ্ট্রপতি প্রাসাদের অফিসিয়াল ইন্সটাগ্রাম একাউন্টে শেয়ার করা এক সংক্ষিপ্ত ভিডিওতে ফ্রান্সের রাষ্ট্রপতি ইমানুয়েল ম্যাখো, ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী টেরিজা মে, কানাডিয়ান প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো এবং আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের পরিচালক ড ক্রিস্টিন লাগার্দের মধ্যে এক কথোপকথনে ইভাঙ্কাকে অংশগ্রহণ করতে দেখা যায়।

অনেক ডেমোক্রেট ও উদার মন্তব্যকারীরা শীর্ষস্থানীয় ব্যক্তিদের কথোপকথনে অংশগ্রহণ করায় ইভাঙ্কার সমালোচনা করেন। ‘কারও কন্যা হওয়াটা কোন যোগ্যতা নয়’ বলেও অনেকে মন্তব্য করেন। বিশ্ব নেতাদের কথোপকথনের মধ্যে অযাচিতভাবে অংশগ্রহণকে কেন্দ্র করে টুইটারে ইভাঙ্কাকে নিয়ে সমালোচনাতেই থেমে যায়নি নেটিজেনরা। ঐতিহাসিক বিভিন্ন ছবি এডিট করে সেখানে ইভাঙ্কাকে বসিয়ে দিয়ে টুইটারে ঠাট্টার ঝড় শুরু হয়।

টুইটারে, হ্যাশট্যাগ ‘#অনাওয়ান্টেডইভাঙ্কা’ পোস্টের ঝড় শুরু হয়। অনেক বিখ্যাত এবং ঐতিহাসিক ঘটনা ইভাঙ্কার ছবি সম্পাদনা করা হয়।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে মার্কিন বাহিনীর যুদ্ধকালীন ছবি, বিখ্যাত ব্যান্ড বিটলসের প্রচ্ছদ থেকে শুরু করে মার্কিন বর্ণবাদ বিরোধী অবিসংবাদিত নেতা মার্টিন লুথার কিং জুনিয়রের ‘আই হ্যাভ আ ড্রিম’খ্যাত ঐতিহাসিক সমাবেশেও ইভাঙ্কাকে সম্পাদিত করে বসিয়ে দেয়া হয়েছে।

বোরকা ও হিজাব পরিধানকারীদের হয়রানি কেন বেআইনি নয়: হাইকোর্টের রুল

1 COMMENT

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.