Home এন্টারটেইনমেন্ট হজ্বের মৌসুমে সৌদি আরবে মার্কিন র‍্যাপ তারকার কনসার্ট: বিশ্বব্যাপী প্রতিক্রিয়া

হজ্বের মৌসুমে সৌদি আরবে মার্কিন র‍্যাপ তারকার কনসার্ট: বিশ্বব্যাপী প্রতিক্রিয়া

1

উম্মাহ ডেস্ক: সউদী আরবে এবার চলতি হজ্ব মৌসুমে এক আয়োজনে পারফর্ম করবেন মার্কিন যৌন আবেদনময়ী র‌্যাপার নিকি মিনাজ। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শুরু হয়েছে তোলপাড় এবং ব্যাপক সমালোচনা ও আলোচনার ঝড়।

নিকি মিনাজ তার গানের কথা ও ‘খোলামেলা’ মিউজিক ভিডিওর জন্য পরিচিত। সেই মিনাজই ১৮ জুলাই পারফর্ম করবেন সউদী আরবের পশ্চিমের শহর জেদ্দায়। শহরটিতে অনুষ্ঠিত সাংস্কৃতিক উৎসবের অংশ হিসেবে নিকি মিনাজকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন আয়োজকরা।

স্থানীয় গণমাধ্যম জানিয়েছে, নিকি মিনাজের নাচ-গানের সঙ্গে ব্রিটিশ মিউজিশিয়ান লায়ম পেইন এবং মার্কিন ডিজে স্টিভ আওকিও কাজ করবেন। এই অনুষ্ঠান টেলিভিশনে প্রচার করার কথাও জানিয়েছে গণমাধ্যম। আয়োজকদের একজন রবার্ট কোয়ের্ককে উদ্ধৃত করে আরব নিউজ জানিয়েছে, ‘সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও তিনি (মিনাজ) খুব সক্রিয় থাকবেন। জেদ্দায় স্টেজ থেকে তো বটেই, হোটেল থেকেও তিনি অনেক কিছু শেয়ার করবেন।’

মার্কিন র‍্যাপ তারকা নিকি মিনাজ অতিযৌনতাসূচক ভাবমূর্তির জন্য পরিচিত। তাকে সবসময়ই যৌন উত্তেজক মিউজিক ভিডিও তৈরি করতে দেখা যায়। তার লাইভ কনসার্টেও দেখা যায় একই চিত্র। নিকি মিনাজের গানের কথাও বেশিরভাগ যৌনতা সম্পর্কিত। কনসার্টে তিনি থাকেন একেবারেই খোলামেলা।

গত বুধবার কনসার্টের আয়োজকদের পক্ষ থেকে নিকি মিনাজের নাম ঘোষণা করার পর সৌদি আরবের সামাজিক মাধ্যমে ব্যাপক বিতর্ক শুরু হয়। অনেকেই বলছেন, পবিত্র মক্কা ও মদীনার অবস্থান স্থল এবং মহানবী হযরত মোহাম্মাদ (স.)’র জন্মভূমিতে নিকি মিনাজের মতো শিল্পীর আগমন ও কনসার্ট কোনোভাবেই মেনে নেওয়া যায় না। হজ্বের মওসুমে সৌদি আরবে এমন কনসার্টের বিষয়ে দেশটির অনেক নাগরিকই অসন্তুষ্ট। ওই কনসার্টে অংশ গ্রহণের কথা জানিয়ে নিকি মিনাজ নিজেও একটি টুইট করেছেন। এতে বিতর্ক আরও জোরালো হয়েছে।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে মুসলমানরা যখন পবিত্র হজ পালনের জন্য সৌদি আরব যাচ্ছেন, ঠিক সে সময় জেদ্দায় মার্কিন র‍্যাপার নিকি মিনাজকে নিয়ে কনসার্ট আয়োজনকে রহস্যজনক হিসেবেও মন্তব্য করেছেন কেউ কেউ। সৌদি সরকারের এই পদক্ষেপকে গোটা বিশ্বের মুসলমান বিশেষকরে হজযাত্রীদের জন্য অপমানজনক হিসেবে গণ্য করা হচ্ছে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কোনো কোনো হজযাত্রী লিখেছেন, সৌদি আরব রাসূল (স.)’র দেশে রাষ্ট্রীয়ভাবে নগ্নতার সংস্কৃতি চালু করার সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকলে তাদের উচিত পবিত্রতম ভূমি মক্কা-মদিনার দায়িত্ব প্রকৃত মুসলমানদের হাতে ছেড়ে দেওয়া।

চীনে মুসলিম শিশুদেরকে পরিবার থেকে বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হচ্ছে