Home স্পোর্টস বিশ্বকাপের সেমি থেকে ভারতের বিদায়: ফাইনালে নিউজিল্যান্ড

বিশ্বকাপের সেমি থেকে ভারতের বিদায়: ফাইনালে নিউজিল্যান্ড

1

উম্মাহ স্পোর্টস: ভারতকে ১৮ রানে হারিয়ে টানা দ্বিতীয়বারের মতো বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠেছে নিউজিল্যান্ড। ২০১১ সালে দেশের মাটিতে শিরোপা জয়ের পর ভারত টানা দ্বিতীয়বার বিদায় নিল বিশ্বকাপের সেমি-ফাইনাল থেকে।

ম্যানচেস্টারের ওল্ড ট্রাফোর্ড স্টেডিয়ামে নিউজিল্যান্ডের ৮ উইকেটে ২৩৯ রানের জবাবে ৪৯.৩ ওভারে ভারতের ইনিংস থামে ২২১ রানে। নিউজিল্যান্ডের পেসাররা মাত্র পাঁচ রানের মধ্যেই ভারতের শীর্ষ তিন ব্যাটসম্যানকে ফিরিয়ে দেন। দুই ওপেনার লোকেশ রাহুল এবং রোহিত শর্মাকে ফিরিয়ে দেন ম্যাট হেনরি। বিরাট কোহলিকে এলবিডব্লিউতে বিদায় করেছেন ট্রেন্ট বোল্ট। এই তিন ব্যাটসম্যানই ফিরেছেন এক রান করে।

এরপর দলীয় ২৪ রানে ফেরেন দিনেশ কার্তিক (৬)। হেনরির তৃতীয় শিকার হয়ে ফিরেছেন তিনি। এরপর আশা জাগিয়েও ফিরেছেন ঋসভ পান্ত এবং হার্দিক পান্ডিয়া।

দলীয় ৯৬ রানের মধ্যে ফিরেছেন এই দুজন। দুজনের ব্যাটে থেকেই আসে ৩২ রান করে। এরপর দেখেশুনে খেলতে শুরু করেন মহেন্দ্র সিং ধোনি এবং রবীন্দ্র জাদেজা। ধোনি রক্ষণাত্মক খেললেও হাত খুলে খেলতে থাকেন জাদেজা।

হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেন জাদেজা। ধোনির সঙ্গে তিনি যোগ করেন ১১৬ রান। ম্যাচের ৪৮তম ওভারে ট্রেন্ট বোল্টের বলে ফিরে যাওয়ার আগে ৫৯ বলে ৭৭ রানের ইনিংস খেলেন বাঁহাতি এই অলরাউন্ডার।

তাঁর ইনিংসে ছিল চারটি করে ছক্কা এবং চারের মার। ৪৯তম ওভারে মার্টিন গাপটিলের দুর্দান্ত একটি থ্রো’তে রানআউট হয়ে বিদায় নেন ধোনি। বিশ্বকাপে নিজের শেষ ইনিংসে ৭২ বলে ৫০ রান করেন তিনি।

জাদেজা-ধোনির বিদায়ের পর নুইয়ে পড়ে ভারত। ২২১ রানে অলআউট হয়ে যায় দলটি।   নিউজিল্যান্ডের হয়ে ম্যাট হেনরি ৩ উইকেট নেন ৩৭ রানে। ম্যাচসেরাও হয়েছেন এই পেসার।

এর আগে মঙ্গলবার টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই ভুগতে থাকেন অফফর্মে থাকা মার্টিন গাপটিল। ১৪ বলে এক রান করে ভারতের পেসার জাসপ্রিত বুমরাহ’র বলে স্লিপে ক্যাচ তুলে ফিরেছেন তিনি।

এরপর আরেক ওপেনার হেনরি নিকোলসের সঙ্গে ৬৮ রানের জুটি গড়েন অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। উইকেটে থিতু হয়ে খেলতে থাকা নিকোলস বোল্ড হয়ে ফিরেন ২৮ রানে। তাঁকে ফিরিয়েছেন জাদেজা।

তৃতীয় উইকেট জুটিতে উইলিয়ামসনের সঙ্গে ৬৫ রান যোগ করেন রস টেলর। আসরে অসাধারণ ফর্মে থাকা উইলিয়ামসন এই ম্যাচেও করেছেন ৬৭ রান।

৯৫ বলের এই ইনিংসে ছিল ছয়টি চারের মার। তাঁকে ফিরিয়েছেন যুবেন্দ্র চাহাল। জেমস নিশাম (১২) এবং কলিন ডি গ্র্যান্ডহোমও (১৬) দলীয় ২০০ রানের মধ্যে  এই দুজনকে ফিরিয়েছেন যথাক্রমে হার্দিক পান্ডিয়া এবং ভুবনেশ্বর কুমার। তাঁদের সঙ্গে ছোটো দুটি জুটি গড়ে নিজের হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেন অভিজ্ঞ টেলর।

একপ্রান্ত আগলে রেখে দারুণ একটি ইনিংস খেলেছেন টেলর। আগের দিনের ৬৭ রানের সঙ্গে এদিন আরও কিছু রান যোগ করেন তিনি। কিউইদের ২৩৯ রানের পুঁজিতে তাঁর অবদান ৭৪ রান।

ভারতের হার্দিক পান্ডিয়া ১০ ওভারে ৫৫ রান দিয়ে একটি, রবীন্দ্র জাদেজা ১০ ওভারে ৩৪ রান দিয়ে একটি আর যুভেন্দ্র চাহাল ১০ ওভারে ৬৩ রান দিয়ে একটি উইকেট তুলে নেন। ভুবনেশ্বর কুমার ১০ ওভারে ৪৩ রান দিয়ে তিনটি উইকেট পান। আর জাসপ্রিত বুমরাহ ১০ ওভারে ৩৯ রান দিয়ে তুলে নেন একটি উইকেট।

ধোনির কেঁদে কেঁদে মাঠ ছাড়ার ভিডিও ভাইরাল