Home শীর্ষ সংবাদ ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগির সংখ্যা বাড়ছেই: আরও ৪ জনের মৃত্যু, রক্ত সরবরাহে সংকট

ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগির সংখ্যা বাড়ছেই: আরও ৪ জনের মৃত্যু, রক্ত সরবরাহে সংকট

1
নিহত অতিরিক্ত আইজি শাহাবুদ্দিন কোরেশীর স্ত্রী সৈয়দা আক্তার ও শারমিন আরা শাপলা।

ডেস্ক রিপোর্ট: দেশে আতঙ্ক সৃষ্টিকারী ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা প্রতিদিনই বাড়ছে। রাজধানী ঢাকাসহ বাইরের জেলাগুলোতেও সরকারি-বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকগুলো ক্রমবর্ধমান ডেঙ্গুরোগী সামাল দিতে হিমশিম খাচ্ছে। সারাদেশে আজ সোমবার দুপুর ২টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে দুই হাজার ৬৫ জন। দেখা দিচ্ছে রক্ত সরবরাহের সংকট।

এদিকে বাড়ছে মৃত্যুর সংখ্যাও। ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে আজও ঢাকা, মাদারীপুর ও কুমিল্লায় চারজনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে অন্তঃসত্ত্বা এক নারী ও ১৩ বছরের এক শিশু রয়েছে।

ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে আজ সকালে রাজধানীর শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান শারমিন আরা শাপলা নামের একজন অন্তঃসত্ত্বা মহিলা। তিনি আবহাওয়া অধিদফতরের উপ-পরিচালক এ কে এম নাজমুল হকের স্ত্রী।

গতকাল ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান সৈয়দা আক্তার (৫৫)। তিনি পুলিশ সদর দফতরের অতিরিক্ত আইজি (ফিন্যান্স অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট) শাহাবুদ্দিন কোরেশীর স্ত্রী।

এছাড়া, গতকাল রোববার রাতে ঢাকার মুগদা ক্লিনিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান ইডেন মহিলা কলেজের ছাত্রী ইভা আক্তার (২৪)। এর আগে রোববার বিকেলে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে মারা যান ইডেন কলেজের আর এক ছাত্রী শান্তা তানভির।

খুলনায় ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে রোববার একজনের মৃত্যু ঘটেছে। ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে খুলনায় রোববার সকালে এক স্কুলছাত্র ও শনিবার মধ্যরাতে এক বৃদ্ধা মারা গেছেন।

চাঁদপুরের মতলব উপজেলায় ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে শনিবার মধ্যরাতে প্রাণ হারিয়েছেন লাভলী আক্তার (৩৮) নামের এক নারী ইউপি সদস্য। তিনি খাদেরগাঁও ইউনিয়নের নির্বাচিত নারী সদস্য ছিলেন।  

বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকগণ বলছেন, এবারের মৃত্যুর তালিকায় শিশু ও নারীদের সংখ্যা বেশী। এজন্য রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম থাকা এবং অতিরিক্ত রক্তক্ষরণকে দায়ী করছেন তারা।

এদিকে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আবুল কালাম আজাদ বলেছেন, ডেঙ্গু মোকাবিলায় দুই সিটি কর্পোরেশনের যে সক্ষমতা দেখানোর দরকার ছিল তা দেখাতে পারেনি।

আজ (সোমবার) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে আয়োজিত এক ব্রিফিংয়ে তিনি এ মন্তব্য করে তিনি আশঙ্কা প্রকাশ করেন, ঈদের ছুটির ছুটির মধ্যে ঢাকার বাইরে হাসপাতালগুলোতে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা বাড়তে পারে, তবে ঢাকায় রোগীর সংখ্যা কমতে পারে।

উল্লেখ্য, এই মুহূর্তে দেশের সবকটি জেলায় ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। জানুয়ারি থেকে এ পর্যন্ত সারাদেশে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ২১ হাজার ছাড়িয়েছে। এ অবস্থায় আজ ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) আওতাধীন এলাকায় ব্যবহারের জন্য মশার ওষুধের নমুনা বিদেশ থেকে বিমানযোগে ঢাকায় এসে পৌঁছেছে। তবে ওষুধের নমুনা কোন দেশ থেকে এসেছে বা তার নাম কী, সে বিষয়ে তাৎক্ষণিকভাবে কিছুই জানাতে পারেননি তিনি।

তবে তার আগে গতকাল ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন নগর ভবনে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে ডেঙ্গুর বাহক এডিস মশার কামড় থেকে রক্ষা পেতে মসজিদের ইমামসহ সবাইকে লম্বা জামা-পায়জামা ও মোজা পরার পরামর্শ দিয়েছেন।

নগরীর মসজিদের ইমামদের প্রতি আনুরোধ জানিয়ে মেয়র বলেছেন, তারা যেন নিজ এলাকায় প্রতিটি মসজিদে ডেঙ্গু থেকে মুক্তির লক্ষ্যে দোয়া পাঠ করবেন। যেন এ শহর দ্রুত ডেঙ্গুমুক্ত হয়। কারণ আল্লাহ ধৈর্যশীল ও নামাজিদের পছন্দ করেন। আমরা ধৈর্য ধরব ও নামাজের সঙ্গে আল্লাহর দরবারে সাহায্য প্রার্থনা করব। নিশ্চয় তিনি আমাদের মাফ করবেন।

এরআগে সাঈদ খোকন ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভবকে ‘গুজব’ বলে উড়িয়ে দিলে সর্বমহলে তীব্র সমালোচনার শিকার হন।

এবার মেয়রের লম্বা জামা-পাজামা পরার পরামর্শ ক্ষুব্ধ হয়ে মো. ফিরোজ শাহ নামে বে নাগরিক সামাজিক মাধ্যমে একজন লিখেছেন, “তার চেয়ে বলেন কাফনের কাপড় পরে থাকতে।’’

উপহাস করে মো. গোলাম মহিউদ্দীন লিখেছেন, “এইতো আল্লাহ পুরুষের পর্দার কাজও আগাইয়া দিলেন। মুখেও কামড়াইতে পারে তাই এক সাথে মুখ বোরকায় ঢাকলে ফরজও আদায় হল ডেঙ্গুর কামড় থেকেও পুরুষ জাতি বাছলো।”

1 COMMENT

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.