Home জাতীয় চট্টগ্রামে বিক্রি করতে না পেরে লাখ লাখ চামড়া ফেলে গেছে ব্যবসায়ীরা (ভিডিও)

চট্টগ্রামে বিক্রি করতে না পেরে লাখ লাখ চামড়া ফেলে গেছে ব্যবসায়ীরা (ভিডিও)

0
- সংগৃহীত ছবি।

ডেস্ক রিপোর্ট: গতকাল কোরবানীর পর সমগ্র চট্টগ্রাম জেলা ও মহানগরী থেকে পশুর চামড়া নিয়ে মৌসুমী ব্যবসায়ীরা তা টেনারীতে বিক্রির জন্য নগরীর পাঁচলােইশস্থ আতুরার ডিপু এলাকায় নিয়ে যায়।  কিন্তু সে চামড়া কম মূল্যেও টেনারি মালিকরা কিনেনি। ফলে নগরীর মুরাদপুর থেকে অক্সিজেন আতুরার ডিপু এলাকা পর্যন্ত হাটহাজারী সড়কের দুই পার্শ্বে লাখ লাখ চামড়ার স্তুপ পড়ে থাকে।

ব্যবসায়ীরা চামড়া বিক্রি করতে না পেরে লাখ লাখ টাকার চামড়া ফেলে চলে যায়। চামড়ার পঁচা গন্ধের ফলে এলাকার পরিবেশ ভারী হয়ে উঠেছে।

এ অবস্থায় আজ মঙ্গলবার বিকাল ৫টা থেকে চট্টগ্রামের আতুরার ডিপু এলাকায় স্থানীয় ওয়ার্ড কাউান্সিরের নেতৃত্বে সিটি কর্পোরেশনের পরিচ্ছন্ন কর্মীরা বুলডোজারের সাহয্যে এসব চামড়া ট্রাকে তুলে ডাম্পিং এ নিয়ে গিয়ে ফেলতে দেখা যায়।

স্থানীয় বাসিন্দা রাজনৈতিক নেতা মো. ইদ্রিস আলী জানান, ব্যবসায়ীরা কোরবানীর পশুর চামড়া এনেছিল বিক্রি করতে কিন্তু ন্যাযসূল্য না পেয়ে কা ফেলে চলে যায়।  রাস্তার দুই পার্শ্বে লাখ লাখ চামড়া পড়ে থাকায় এলাকায় দুর্গন্ধ ছড়াতে থাকে এবং যানবাহন চলাচল ব্যহত হচ্ছিল। এ কারণে সিটি কর্পোরেশনের কর্মীরা আজ বিকাল থেকে এসব চামড়া ট্রাকে তুলে নিয়ে ফেলে দিয়েছে।

পটিয়া থেকে ৩শ চামড়া নিয়ে এসেছিলেন মৌসুমী ব্যবসায়ী আব্দুল গফুর। তিনি জানান, গতকাল সন্ধ্যায় গড়ে ২শ টাকা দরে চামড়া কিনে ট্যানারীতে এনেছিলাম বিক্রি করতে। কিন্তু মালিকরা চামড়া কিন্তু চায় না। তাই বিক্রি করতে পারিনি।  ইতোমধ্যে চামড়ায় পচন ধরেছে। তাই ফেলে দিয়ে চলে যাচ্ছি।

৩১ বছরের মধ্যে সবচেয়ে কম কুরবানীর চামড়ার মূল্য: আওয়ামী সিন্ডিকেটকে দুষছে বিএনপি

কাঁচা চামড়া আড়তদার সমিতির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আবদুল কাদের পর্যাপ্ত চামড়া ক্রয় করতে না পারার কথা স্বীকার করে বলেন নানান সীমবিন্ধতার কারণে চাহিদা মত চামড়া কেনা যায়নি। একেতো এখন ট্যানারীর সংখ্যা কম, দ্বিতীয়তা ট্যানারী মালিকরা পুঁজিহারা। ঢাকার ট্যানারী মালিকরা গত বছরের সরবরাহ করা প্রায় দেড়শ কোটি টাকা এখনো দেয়নি। তাই এবার চামড়ার ব্যবসা মন্দা।

ভিডিও- পাঠক নিউজ-এর সৌজন্যে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.