Home জাতীয় ইসলামের শিক্ষা সর্বস্তরে নিশ্চিত করলে সমাজে সন্ত্রাস কমে যাবে : আল্লামা জুনায়েদ...

ইসলামের শিক্ষা সর্বস্তরে নিশ্চিত করলে সমাজে সন্ত্রাস কমে যাবে : আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী

0

দিনব্যাপী ব্যাতিক্রমধর্মী সেমিনারের মধ্য দিয়ে আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু করলো ‘ইকরামুল মুসলিমীন ফাউন্ডেশন’ নামের সামাজিক ফাউন্ডেশন। সেমিনারে সামাজিক কার্যক্রমে ওলামায়ে কেরামদের অবদান শীর্ষক দীর্ঘ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। দেশ বরেণ্য ওলামায়ে কেরাম ও বিশিষ্ট শিক্ষাবীদগন আলোচনায় অংশ নিয়ে এ কার্যক্রমের সাথে সকলেই সমানভাবে অংশীদার থাকবেন বলে আশ্বাস দেন সাথে সাখে সামাজিক কার্যক্রমে আলেমদের অংশগ্রহণের ব্যাপারে সবাইকে কাজ করার আহবান জানান।

আজ (৩১ অক্টোবর) বৃহস্পতিবার, শনির আখড়া দনিয়া বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ মাঠে এ সেমিনার ও মহা সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। জাতীয় সাংস্কৃতিক সংগঠন কলরব এর শিল্পীদের সংগীতের মথ্য দিয়ে সকাল ৯.০০ টা থেকে শুরু হয়ে দুপুর তিনটা পর্যন্ত প্রথম অধিবেশনে বক্তব্য রাখেন দেশবরেণ্য আলেম লেখক ও শিক্ষাবীদগণ।

সেমিনারে প্রধান মেহমান হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, যাত্রাবাড়ি জামিয়া মাদানিয়া মাদরাসার মহাপরিচালক আল্লামা মাহমুদুল হাসান। তিনি তার দীর্ঘ আলোচনায় আলেমদের প্রতি অনুরোধ রেখে বলেছেন, সবাই যেন দীনের কাজের সাথে সাথে সামাজিক কাজে জোড়ালো ভূমিকা গ্রহণ করেন। তিনি আরও বলেন, আমি জোড় দিয়ে বলতে পারি আলেমরা সামাজিক কার্যক্রমে এগিয়ে এলে সমাজের অনেক সমস্যা সমাধান হয়ে যাবে।

শায়খুল হাদীস আল্লামা ফজলুর রহমানের সভাপতিত্বে ও ইকরামুল মুসলিমীন ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপনায় অনুষ্ঠিত এই মহা সম্মেলন ও সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, দারুল উলুম হাটহাজারী মাদরাসার সহকারী পরিচালক আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী। তিনি তার বক্তব্যে বলেন, বর্তমান সমাজে ইসলামের শিক্ষা এবং জীবন পালনে ইসলামের আদর্শ সঠিকভাবে বাস্তবায়িত না থাকায় সমাজে সন্ত্রাস, দুর্নীতি ইত্যাদি বেড়ে চলেছে। তাই আলেমদের বিভিন্ন ক্ষেত্রে এগিয়ে আসতে হবে।

আলোচনায় তিনি আরও বলেন, আলেমদের সামাজিক কাজে অবদান অনেক বেশি। বর্তমান সমাজে বেশিরভাগ অপরাধ সংগঠিত হয় আলেমদের সংস্পর্শে না থাকার কারণে। আলেমরা মানুষকে নীতি নৈতিকতা প্রদানের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ভূমিকা রাখতে পারেন। তিনি এই সেমিনার আয়োজনের জন্য আয়োজকদেরকে ধন্যবাদ জানান এবং সারাদেশে এমন কাজ বেশি বেশি করার প্রতি জোর তাগিদ দেন।

এছাড়াও সেমিনারে উপস্থিত হয়ে জামিয়া নুরিয়া ইসলামীয়া কামরাঙ্গীচর মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা শাহ আতাউল্লাহ হাফেজ্জী বলেন, আমরা দীনের স্বার্থেই যে কোন কাজ করবো। কোন ধরণের ব্যক্তি পরিচিতি বা প্রচার পাওয়ার জন্য কিছু করবো না। সমাজের যে কোন উপকার বা সমস্যার সমাধানে আলেমদের সকল ভূমিকার প্রতিদান আল্লাহ তায়ালা অবশ্যই প্রদান করবেন। তিনি সামাজিক কাজে আলেম ওলামাদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে অনুরোধ করেছেন।

সেমিনারে বিদেশী এনজিওদের দৌরাত্ম সম্পর্কে সতর্ক করে সামাজিক কাজে আলেম-ওলামাদের অবদান ও অংশগ্রহণের ব্যাপারে সার্বিক দিক নির্দেশনামূলক আলোচনা করে ওমনগণি এমইস কলেজ চট্টগ্রাম এর সাবেক অধ্যাপক ড. আ ফ ম খালিদ হোসাইন ইকরামুল মুসলিমীন ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য ও প্রাথমিক আহবায়ক কমিটির নাম ঘোষণা করেন।

এছাড়াও সেমিনারে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা করেছেন, বাংলাদেশ কুরআন শিক্ষা বোর্ড এর মহাসচিব মাওলানা নুরুল হুদা ফয়েজী, আহলে সুন্নাত ওয়াল জামায়াত পরিষদ মহাসচিব মুফতী মিযানুর রহমান সাঈদ, বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়ার মহাপরিচালক অধ্যাপক যোবায়ের আহমাদ চৌধুরী, ইসলামী আলোচক মাওলানা খালিদ সাইফুল্লাহ আইয়ুবী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ইসলামের ইতিহাস ও সাংস্কৃতি বিভাগের চেয়ারম্যান ড. আতাউর রহমান মিয়াজী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ফার্সী বিভাগের সহকারী পরিচালক জনাব আহসানুল হাদী, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় অধ্যাপক ড. আহমাদ আবদুল কালাম, আল্লামা শাহ আহমদ শফী দা. বা. এর খলিফা মাওলানা ওমর ফারুক সন্দীপী, জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররম এর পেশ ইমাম মুফতী মুহিব্বুল্লাহ বাকি নদভী, মাদানীনগর মাদরাসার প্রধান মুফতী, মুফতী বশিরুল্লাহ, বিশিষ্ট মিডিয়া ব্যক্তিত্ব, নুরুল আলম মাহদী, ইসলামী আলোচক আ. খালেক শরিয়তপুরী, বিশিষ্ট লেখক ও কলামিষ্ট মাওলানা যাইনুল আবেদন।

আরও উপস্থিত ছিলেন, মাওলানা আবদুল আখির, মাওলানা মঞ্জুরুল ইসলাম আফেন্দী, শাহ ইফতেখার তারিক, জাগ্রত কবি মুহিব খান, মুফতী হামেদ জাহেরী, ইসলামী লেখক ফোরামের সভাপতি মাওলানা জহির উদ্দীন বাবর, মাওলানা হালিম নোমানী আল-আযহারী, মুফতী এনায়েতুল্লাহ, মাওলানা আবদুল আউয়াল, মাওলানা সৈয়দ জহির উদ্দীন, মাওলানা লুৎফর রহমান ফরায়েজী প্রমুখ।

সম্মেলন বাস্তবায়ন কমিটির পক্ষে বিশেষ মেহমান হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, মুফতী হাবিবুর রহমান মিছবাহ, মুফতী মুহাম্মদ আমিমুল ইহসান, মাওলানা সফিউল্লাহ লহোরী, মাওলানা রুহুল আমীন সাদী, হাফেজ ক্বারী নেছার আহমাদ আন-নাছেরী, মাওলানা হুমায়ুন আইয়ুব, মাওলানা হেদায়েতুল্লাহ আজাদী, মুফতী শামসুদ্দোহা আশরাফী, মুফতী ইয়াসীন আহমাদ ফারুকী, মুফতী সাঈদ আহমাদ, মুফতী মাহফুজুর রহমান জাবের, মাওলানা বদরুজ্জামান, মাওলানা হাছিব আর রহমান, মাওলানা আবু বকর, মুফতী রেজাউল করীম আবরারসহ আরও অনেকে। -বিজ্ঞপ্তি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.