Home জাতীয় ফেনীতে চিকিৎসক–পুলিশসহ এক দিনে ৩১ জনের করোনা শনাক্ত

ফেনীতে চিকিৎসক–পুলিশসহ এক দিনে ৩১ জনের করোনা শনাক্ত

ডেস্ক রিপোর্ট: ফেনীতে করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হওয়ার সংখ্যা বাড়ছে। গতকাল শনিবার রাতে প্রাপ্ত নমুনা পরীক্ষার ফলাফলে চিকিৎসক, পুলিশসহ এক দিনে ৩১ জনের করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় মোট কোভিড–১৯ রোগীর সংখ্যা হলো ৬১।

এই ৩১ জনের মধ্যে দুজন চিকিৎসকসহ স্বাস্থ্য বিভাগের ৯ জন কর্মকর্তা–কর্মচারী এবং একজন উপপরিদর্শকসহ পুলিশের তিনজন আছেন। নতুন আক্রান্তদের মধ্যে ফেনী সদর উপজেলায় ১৪ জন, পরশুরামে ৪ জন, ছাগলনাইয়ায় ৩ জন, দাগনভূঁঞায় ৪ জন, সোনাগাজীতে ৪ জন ও ফুলগাজীতে ২ জন আছেন।

গত ১৬ এপ্রিল থেকে ১৫ মে পর্যন্ত এক মাসে ফেনী জেলায় সংক্রমিতের সংখ্যা ছিল ৩০ জন। ১৬ মে একদিনেই দ্বিগুণের বেশি বেড়ে ৬১ জনে দাঁড়িয়েছে। তবে এর মধ্যে দুজন চিকিৎসকসহ ৮ জন সুস্থ হয়েছেন। তিনজনকে চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

আরও পড়তে পারেন-

সফল জীবন ও শান্তিপূর্ণ সমাজ গড়ার সহজ উপায়

অমুসলিমদের সাথে ইসলামের শান্তিপূর্ণ সহাবস্থান নীতি

মার্কিন গবেষকদের চোখে মুসলমানদের নামাজ

চিন্তার ইতিহাসে সেক্যুলারিজমের জন্ম কীভাবে হয়েছিলো?

মাহে রমযানের ফযীলত এবং বিধি-বিধান ও পূর্ণাঙ্গ মাসআলা

গতকাল রাতে ফেনীর সিভিল সার্জন মো. সাজ্জাদ হোসেন এসব তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, নতুন আক্রান্তদের চিকিৎসা কোথায় দেওয়া হবে, আজ রোববার এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত হবে। তবে আগের আক্রান্তরা বাড়িতে আইসোলেশনে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন। স্বাস্থ্য বিভাগ তাদের চিকিৎসার নিয়মিত তদারকি করছে।

সিভিল সার্জন আরও বলেন, জেলায় যে হারে কোভিড–১৯ রোগীর সংখ্যা বাড়ছে তাতে স্বাস্থ্য বিভাগও উদ্বিগ্ন। তিনি জনগণকে স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব মেনে চলার আহ্বান জানান।

ফেনী স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্র জানায়, জেলায় এ পর্যন্ত ৯৪৯ জনের নমুনা সংগ্রহ করে চট্টগ্রামের বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেজ (বিআইটিআইডি) হাসপাতাল, চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও অ্যানিমেল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় এবং নোয়াখালী আবদুল মালেক মেডিকেল কলেজে পাঠানো হয়। এখন পর্যন্ত ৮৩৪ জনের ফলাফল পাওয়া গেছে।

উম্মাহ২৪ডটকম:এসএএ

উম্মাহ পড়তে ক্লিক করুন-
https://www.ummah24.com

করোনাভাইরাস চিকিৎসায় কীভাবে কাজ করবে প্লাজমা থেরাপি?

সঠিকভাবে যাকাত আদায় হলে দরিদ্রমুক্ত বাংলাদেশ গড়া সম্ভব: মুফতি সুলতান মহিউদ্দীন