Home অন্যান্য খবর বরেণ্য শিক্ষাবিদ প্রিন্সিপাল মাওলানা নূরুল হুদার ৭ম মৃত্যুবার্ষিকী আজ

বরেণ্য শিক্ষাবিদ প্রিন্সিপাল মাওলানা নূরুল হুদার ৭ম মৃত্যুবার্ষিকী আজ

প্রিন্সিপাল মাওলানা নূরুল হুদা (রাহ.)।

উম্মাহ প্রতিবেদক: আজ ১৫ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার বরেণ্য শিক্ষাবিদ প্রিন্সিপাল মাওলানা মো. নূরুল হুদা (রাহ.)এর ৭ম মৃত্যুবার্ষিকী। ঘাতক ব্যাধি ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে ২০১৩ সালের এদিনে রাজধানীর ল্যাবএইড হাসপাতালে তিনি ইন্তিকাল করেন। চার দশকের বেশী সময় ধরে দেশের স্বনামধন্য বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অধ্যক্ষের দায়িত্ব পালনসহ অর্ধশতাব্দীর অধিক সময় তিনি শিক্ষকতা পেশায় নিবেদিত ছিলেন। দেশের দুই ধারার মাদরাসা শিক্ষা ব্যবস্থা কওমী ও আলীয়া শিক্ষাক্রমে সর্বোচ্চ ডিগ্রিধারি (কামিল ও দাওরা হাদীস) মাওলানা নূরুল হুদা ছিলেন কোরআন, হাদিস, ফিকাহ ও আরবী সাহিত্যবিশারদ।

সুদীর্ঘ শিক্ষকতা জীবনে বহু হক্কানী আলেমে দ্বীন তৈরি করে গেছেন তিনি। মৃত্যুকালে তিনি ঢাকার সন্নিকটে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের পূবাইলে অবস্থিত ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হারবাইদ দারুল উলুম ফাজিল (ডিগ্রি) মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল ছিলেন। টঙ্গীর ঐতিহ্যবাহী দুই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আল- হেলাল স্কুল ও আল-হেলাল একাডেমীর প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালনা পরিষদের চেয়ারম্যান, স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা নূরাইন ফাউন্ডেশনের প্রধান উপদেষ্টা ও পৃষ্ঠপোষক ছিলেন তিনি।

বর্ণাঢ্য কর্মময় জীবনে শিক্ষাবিদ মাওলানা নূরুল হুদা (রাহ.) ফেনী ও গাজীপুরে বেশ কয়েকটি স্কুল, মাদরাসা ও মসজিদ প্রতিষ্ঠা করে আধুনিক ও ধর্মীয় শিক্ষার প্রসারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। তিনি সোনাগাজীর আমিরাবাদ ইসলামিয়া সিনিয়র মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ, সোনাগাজী ফাজিল মাদ্রাসার সিনিয়র আরবী প্রভাষক এবং ঢাকা ক্যান্টনমেন্টে মানিকদি সিনিয়র মাদ্রাসার অধ্যক্ষের দায়িত্ব পালন করেন।

আরও পড়তে পারেন-

ঢাকা ক্যান্টনমেন্টে নূরানী জামে মসজিদসহ কয়েকটি মসজিদের খতিব হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন তিনি। কর্মময় জীবনের শুরুতে সোনাগাজীর ঐতিহ্যবাহী কওমী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ভাদাদিয়া মাদ্রাসায় শিক্ষকতা করেন। আমৃত্যু তিনি তামিরুল মিল্লাত কামিল মাদ্রাসা পরীক্ষা কেন্দ্রের কেন্দ্র সচিবের দায়িত্ব পালন করেছেন। দেশব্যাপী প্রখ্যাত ওয়ায়েজ হিসেবেও তিনি সুপরিচিত ছিলেন। জমিয়তুল মোদাররেছিন ও মাদ্রাসা শিক্ষক সমিতিসহ শিক্ষকদের প্রতিনিধিত্বশীল বিভিন্ন সংগঠনের নেতা হিসেবে শিক্ষক সমাজের অধিকার আদায়ে সোচ্চার ছিলেন। দেশে ইসলাম বিরোধী তৎপরতার বিরুদ্ধে আন্দোলন-সংগ্রামে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছেন। লেখালেখির সঙ্গে জড়িত ছিলেন। জনপ্রিয় সাপ্তাহিক ‘সংবাদদাতা’ পত্রিকার সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি ছিলেন তিনি।

মরহুম মাওলানা নূরুল হুদা (রাহ.)এর বড় ছেলে এম আবদুল্লাহ বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে)’র মহাসচিব ও দৈনিক আমার দেশ পত্রিকার নগর সম্পাদক। তার মেঝ ছেলে এম এনায়েত উল্লাহ কমফোর্ট গ্রুপের এমডি। তৃতীয় ছেলে মুহাম্মদ হেদায়েত উল্লাহ দৈনিক ইনকিলাবের সাংবাদিক, সাংবাদিক ইউনিয়ন গাজীপুর (জেইউজি)’র সাধারণ সম্পাদক ও আল-হেলাল স্কুলের প্রিন্সিপাল। ছোট ছেলে এডভোকেট সানাউল্লাহ সাংবাদিকতা ও আইন পেশায় নিয়োজিত।

উম্মাহ২৪ডটকম: এমএ

উম্মাহ পড়তে ক্লিক করুন-
https://www.ummah24.com

দেশি-বিদেশি খবরসহ ইসলামী ভাবধারার গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে ‘উম্মাহ’র ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।