Home রাজনীতি গুম ও বিচারহীনতার সংস্কৃতি চালু হয়েছে; ফখরুল: বিএনপির মুখে এসব কথা মানায়...

গুম ও বিচারহীনতার সংস্কৃতি চালু হয়েছে; ফখরুল: বিএনপির মুখে এসব কথা মানায় না: ওবায়দুল

- ফাইল ছবি।

বর্তমান সরকারের আমলে দেশে গুম ও বিচারহীনতার সংস্কৃতি চালু হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

শুক্রবার দুপুরে এক ভার্চুয়াল ব্রিফিংয়ে তিনি বলেন, ঢাকা ১৮ উপনির্বাচনের পর থেকে দলের ৯ নেতা নেতাকর্মীকে আটক করে সাদা পোশাকের পুলিশ। এদের ৫ জন এখনও নিখোঁজ।

তবে পাল্টা জবা দিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের  বলেছেন, বিএনপির মুখে বিচারহীনতার কথা মানায় না ।

শুক্রবার ঢাকা রিপোর্টাস ইউনিটির মিট দ্যা প্রেসে তিনি বলেন জাতির পিতা, চার নেতাসহ কারো খুনের বিচারই তাদের সময়ই হয়নি। এমনকি ২১ আগস্টে শেখ হাসিনার উপর হামলার বিচারও করেনি বিএনপি।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলামের উদ্দেশে ওবায়দুল কাদের  বলেন, দেশের নির্বাচন কমিশন একটি সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠান। গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ার আওতায় এই কমিশন কাজ করছে। তারা অন্য দেশে কী হলো তা নয়; তাদের  নিজস্ব বিধিবিধা আনুসরণ করবে।

আরও পড়তে পারেন-

ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, দেশে অবস্থা এমন হয়েছে যে, নির্বাচনে বিএনপিকে নির্বাচন কমিশন কর্তৃক জয় লাভের গ্যারান্টি দিতে হবে। বিএনপিকে জয়ী করাই যেন নির্বাচন কমিশনের মূল দায়িত্ব হবে! বিএনপি পরাজিত হলে দায় চাপায় সরকার, নির্বাচন কমিশন ও নির্বাচন ব্যবস্থার ওপর।

ওদিকে বিএনপি’র স্থায়ী কমিটির সদ্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় আজ রাজধানীতে এক অনুষ্ঠানে বলেছেন, সরকার পরিবর্তনে গণজাগরণের প্রত্যাশা করছে বিএনপি।  একটি গণজাগরণের মাধ্যমে এই সরকারকে বিদায় দিয়ে একাত্তরের যে স্বপ্ন একটি গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র, সেই স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে দৃঢ়তা  প্রকাশ করেন বিএনপির এ নেতা।

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ৫৬তম জন্মদিন উপলক্ষে শুক্রবার সকালে দলীয় কার্যালয়ে এক দোয়া মাহফিলে বিএনপি’র এ নেতা বলেন,  দলের যে লক্ষ্য সেই লক্ষ্য অর্জনে, কোথায় মৃত্যু হবে, কোথায় হবে না সেটা নিয়েও বিএনপির নেতৃবৃন্দ ভাবে না।

গয়েশ্বর চন্দ্র  তরুণ প্রজন্মের উদ্দেশে বলেন, আজকের তরুণ সমাজকে বলব, আগামীর দিনটা আপনাদের। আপনাদের বয়সে আমরা বাংলাদেশ কেমন দেখব, সেটা ভেবে ১৯৭১ সালে যুদ্ধ করেছিলাম। কিন্তু যে বাংলাদেশ দেখতে চেয়েছিলাম, সেই বাংলাদেশ দেখতে পারিনি এখনো। সেই বাংলাদেশ দেখার যে লড়াই, সেই লড়াইয়ে আপনাদের পাশে আমরা আছি। আমরা সামনে থাকতে বললেও আছি, পেছনে থাকতে বললেও আছি। অর্থাৎ আমরা কখনোই আপনাদের ছেড়ে যাবো না।

উম্মাহ২৪ডটকম: এমএ

উম্মাহ পড়তে ক্লিক করুন-
https://www.ummah24.com

দেশি-বিদেশি খবরসহ ইসলামী ভাবধারার গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে ‘উম্মাহ’র ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।