Home শিক্ষা ও সাহিত্য জামিয়া মাদানিয়া বারিধারা’র ষান্মাসিক পরীক্ষার ফল প্রকাশ: পাসের হার ৯৮.২৪%

জামিয়া মাদানিয়া বারিধারা’র ষান্মাসিক পরীক্ষার ফল প্রকাশ: পাসের হার ৯৮.২৪%

ছবি- উম্মাহ।

রাজধানীর অন্যতম বিখ্যাত দ্বীনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জামিয়া মাদানিয়া বারিধারা’র ষান্মাসিক পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়েছে। পরীক্ষার ফলাফলে দেখা যায়, মোট ১,৫১৩ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে মুমতায বা জিপিএ-৫ পেয়েছেন ৫৩৮ জন, জায়্যিদ জিদ্দান পেয়েছেন ৫৪৪ জন, জায়্যিদ পেয়েছেন ২৭৩ জন, মকবুল পেয়েছেন ১২৬ জন। অকৃতকার্য হয়েছেন ২০ জন এবং অনুপস্থিত ছিলেন ১২ জন। গড় পাশের হার ছিল ৯৮.২৪%।

জামিয়ার ভারপ্রাপ্ত পরিচালক মাওলানা হাফেজ নাজমুল হাসানের উপস্থিতিতে বৃহস্পতিবার (১৭ ডিসেম্বর) জামিয়ার শিক্ষাসচিব মুফতি মকবুল হোসাইন কাসেমী আনুষ্ঠানিকভাবে শিক্ষার্থীদের সমাবেশে এই ফল প্রকাশ করেন। এ সময় জামিয়ার অন্যান্য মুহাদ্দিস, মুফতি ও শিক্ষকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

পরীক্ষার ফলাফলে দেখা গেছে, ইফতা বিভাগে মোট ৪৮ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে মুমতায হয়েছেন ৪৫ জন এবং ৩ জন জায়্যিদ জিদ্দান। পাশের হার ১০০ ভাগ। আরবী সাহিত্য বিভাগে ৩০ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে মুমতায ১৯, জায়্যিদ জিদ্দান ৯, জায়্যিদ ২, পাশের হার শতভাগ। উলূমে আলীয়ার ১৯ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে মুমতাজ ৪, জায়্যিদ জিদ্দান ৮, জায়্যিদ ৫, মকবুল ১, পাশের হার শতভাগ।

তাকমীলের ২১৪ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে মুমতাজ ১২, জায়্যিদ জিদ্দান ৮৩, জায়্যিদ ৯২, মকবুল ২০, পাশের হার ৯৭.১৮%। ফযীলত-২-এর ১৪০ পরীক্ষার্থীর মধ্যে মুমতাজ ২১, জায়্যিদ জিদ্দান ৬১, জায়্যিদ ৫২, মকবুল ৪, পাশের হার শতভাগ। ফযীলত-১ এর ৯৭ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে মুমতাজ ২৮, জায়্যিদ জিদ্দান ৫৮, জায়্যিদ ১০, মকবুল ১, পাশের হার শতভাগ।

সানাবিয়া উলইয়া’র ৮২ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে মুমতাজ ১৫, জায়্যিদ জিদ্দান ৩০, জায়্যিদ ২০, মকবুল ১৩, পাশের হার ৯৬.২৯%। মুতাওয়াসসিতা-৪ এর ৬৯ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে মুমতাজ ১৯, জায়্যিদ জিদ্দান ২৮, জায়্যিদ ১৩, মকবুল ৭, পাশের হার ৯৮.৫২%।

আরও পড়তে পারেন-

মুতাওয়াসসিতা-৩ক এর ৫০ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে মুমতাজ ১৫, জায়্যিদ জিদ্দান ২০, জায়্যিদ ৬, মকবুল ৭, পাশের হার ৯৬%। মুতাওয়াসসিতা-৩খ এর ৪৭ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে মুমতাজ ১৩, জায়্যিদ জিদ্দান ১৫, জায়্যিদ ৫, মকবুল ১৩, পাশের হার ৯৭.৮৭%। মুতাওয়াসসিতা-২ক এর২১ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে মুমতাজ ১৫, জায়্যিদ জিদ্দান ১, জায়্যিদ ১, পাশের হার ১০০%।

মুতাওয়াসসিতা-২খ এর ২৮ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে মুমতাজ ১৫, জায়্যিদ জিদ্দান ১৯, জায়্যিদ ১, মকবুল ৩, পাশের হার ১০০%। মুতাওয়াসসিতা-১ক এর ৫২ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে মুমতাজ ২৮, জায়্যিদ জিদ্দান ১৩, জায়্যিদ ৪, মকবুল ৬, পাশের হার ৯৮.০৭%। মুতাওয়াসসিতা-১খ এর ৪৭ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে মুমতাজ ২২, জায়্যিদ জিদ্দান ১৩, জায়্যিদ ৬, মকবুল ৫, পাশের হার ১০০%।

ইবতেদায়ী-২ এর ৩২ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে মুমতাজ ১২, জায়্যিদ জিদ্দান ১১, জায়্যিদ ৬, মকবুল ২, পাশের হার ৯৬.৮৭%। ইবতেদায়ী বিশেষ শাখার ৩৯ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে মুমতাজ ২৫, জায়্যিদ জিদ্দান ১০, জায়্যিদ ৩, মকবুল ১, পাশের হার ১০০%। ইবতেদায়ী-১ এর ৪৯ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে মুমতাজ ২২, জায়্যিদ জিদ্দান ১২, জায়্যিদ ৩, মকবুল ৮, পাশের হার ৯১.৮৩%।

হিফয বিভাগের ২৩৪ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে মুমতাজ ৯৮, জায়্যিদ জিদ্দান ৯৩, জায়্যিদ ৩১, মকবুল ৯, পাশের হার ৯৮.৭১%। মক্তব বিভাগের ১৮৮ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে মুমতাজ ১০৪, জায়্যিদ জিদ্দান ৪৩, জায়্যিদ ১৪, মকবুল ২৪, পাশের হার ৯৮.৪%।

উম্মাহ২৪ডটকম’কে এক প্রতিক্রিয়ায় জামিয়ার ভারপ্রাপ্ত পরিচালক হাফেয মাওলানা নাজমুল হাসান জানান, করোনা পরিস্থিতির কারণে লাগাতার ৩ মাস পর্যন্ত শিক্ষার্থীরা নিয়মিত পড়াশোনার বাইরে ছিল। এতদ সত্ত্বেও যে ফলাফল এসেছে, তাতে আমরা অভিভূত। করোনা পরিস্থিতি না থাকলে পাশের হার শতভাগ হতো এবং মেধা তালিকায় আরো অনেকে উঠে আসতেন। তিনি আশাপ্রকাশ করেন বলেন, ছাত্রদের পড়াশোনায় আরো উন্নতির বিষয়ে আমরা বাড়তি মনোযোগ ও যত্ন নেব। ইনশাআল্লাহ, বার্ষিক বোর্ড পরীক্ষায় জামিয়া মাদানিয়া বারিধারার ছাত্রদের শতভাগ সফলতা আসবে বলে আমি আশাবাদি।

ফলাফল প্রকাশের পর জামিয়া মাদানিয়া বারিধারার শিক্ষাসচিব মুফতি মকবুল হোসাইন কাসেমী ছাত্রদের প্রতি পড়াশোনায় আরো বেশি মনোনিবেশ করার আহ্বান জানিয়ে বলেন, বার্ষিক বোর্ড পরীক্ষার আর মাত্র ৩ মাস বাকী আছে। বোর্ড পরীক্ষায় সাফল্য পেতে এখনই প্রস্তুতি শুরু করতে হবে। নিয়মিত দরসের হাজির থাকা ও দৈনন্দিন পড়াশোনা আয়ত্ব করার পাশাপাশি পেছনের পড়ায়ও নজর দিতে হবে। কোনপ্রকার নোট বা গাইড বই অনুসরণ না করে মূল কিতাব আয়ত্ব করতে হবে।

তিনি বলেন, জামিয়ার জিম্মাদার উস্তাদগণ সার্বক্ষণিক ক্যাম্পাসে অবস্থান করে থাকেন। ক্লাস টাইমের বাইরে কিতাবের কোন অংশ বুঝে না আসলে মেধাবী ছাত্রদের সাহায্য নিতে হবে, অথবা সরাসরি উস্তাদগণের কাছ থেকেও বুঝে নেওয়ার সুযোগ রয়েছে। সুতরাং গাইড বা নোট বই অনুসরণের প্রয়োজনই নেই। জামিয়ার আভ্যন্তরীণ সকল আইন ও নির্দেশনা অনুসরণ করে মনোযোগের সাথে পড়াশোনা করলে ইনশাআল্লাহ বোর্ড পরীক্ষার ফলাফলে ব্যাপক সাফল্য আসবে।

উম্মাহ২৪ডটকম: এমএ

উম্মাহ পড়তে ক্লিক করুন-
https://www.ummah24.com

দেশি-বিদেশি খবরসহ ইসলামী ভাবধারার গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে ‘উম্মাহ’র ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।