Home জাতীয় মশার বংশ বিস্তার রোধে রাস্তায় নেমেছেন আল্লামা কাসেমী

মশার বংশ বিস্তার রোধে রাস্তায় নেমেছেন আল্লামা কাসেমী

1

মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়া ডেঙ্গুর জীবাণুবাহী এডিশ মশা নিধনে এবার রাস্তায় নেমেছেন জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব শায়খুল হাদীস আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী। নিজের প্রতিষ্ঠিত অন্যতম বিখ্যাত দ্বীনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জামিয়া মাদানিয়া বারিধারার কয়েকশত ছাত্রকে নিয়ে আজ (৩ আগস্ট) শনিবার ভোরে তিনি এডিশ মশার বংশবিস্তার রোধ করার লক্ষ্যে পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম পরিচালনা করেন।

এ সময় অন্যান্য কর্মকর্তা ও শিক্ষকদের মধ্যে তাঁর সাথে ছিলেন জমিয়তে উলমায়ে ইসলামের কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক মাওলানা জয়নুল আবেদীন, উম্মাহ ২৪ ডটকম সম্পাদক মাওলানা মুনির আহমদ, বারিধারা মাদ্রাসার শিক্ষক মাওলানা আবুল হাসান, মাওলানা হাবীবুল্লাহ ইসলামপুরী, মাওলানা হাবীবুর রহমান প্রমুখ।

আল্লামা কাসেমীর সরেজমিন নির্দেশনা ও তদারকিতে জামিয়া মাদানীয়া বারিধারা মাদ্রাসা ক্যাম্পাস এবং মাদ্রাসার সম্মুখস্থ বারিধারা জে-ব্লকের দুই পাশের ফুটপাথের ঝোঁপঝাড়, ড্রেন ও সড়ক পরিষ্কার করা হয়। প্রায় ২ ঘণ্টাব্যাপী এই পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম চলে। আল্লামা কাসেমীকে সরাসরি পরিচ্ছন্ন কার্যক্রমে রাস্তায় দেখতে পেয়ে শত শত উৎসক মানুষ ভিড় করেন। আল্লামা কাসেমী উপস্থিত জনতার প্রতি নিজের বাসাবাড়ি ও বাড়ির আঙ্গিনা নিজ নিজ তত্ত্বাবধানে পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, ডেঙ্গু রোগ যেভাবে ছড়িয়ে পড়েছে, তাতে এটাকে আল্লাহর গযব বলেই মনে হচ্ছে। কারণ, দেশে যেহারে যেনা, ব্যভিচার, লুটতরাজ, জুলুম, অত্যাচার, অবিচার ও দুর্নীতি ছড়িয়ে পড়েছে এবং জনগণের মধ্যেও এসব উৎখাতে কোন চেতনাবোধ নেই, তাতে আল্লাহর আযাব থেকে আমরা কেউ রেহাই পাব না।

তিনি বলেন, আল্লাহ শুধু জালেমকে ইহকাল ও পরকালে শাস্তি ও আযাব দিয়ে পাকড়াও করেন না, বরং জুলুমকে যারা চুপচাপ মেনে নেয়, জালেমের জুলুমের প্রতিরোধে সাধ্যমতো চেষ্টা করে না, তাদের উপরও আযাব ও গজব নাযিল করেন।

তিনি বলেন, ডেঙ্গুর বর্তমান মহামারি থেকে বাঁচতে হলে স্বাস্থ্যসচেতনতার পাশাপাশি নিজ নিজ দায়িত্বে বাসা-বাড়ি ও বাড়ির আঙ্গিনা পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে। আল্লাহর কাছে তাওবা করে অন্যায়, জুলুম ও গুনাহ থেকে নিজে বাঁচতে হবে এবং সমাজ ও রাষ্ট্র থেকে সকল অনিয়ম, জুলুম, গুনাহের কাজ, অবিচার ও দুর্নীতি উৎখাতে যার যার জায়গা থেকে কাজ করার সংকল্প করতে হবে।

আল্লামা কাসেমী জমিয়তের নেতাকর্মীদের প্রতি যার যার আবাসস্থলে যুবসমাজকে সচেতন করে মশার বংশ বিস্তার রোধকল্পে পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম পরিচালনার আহ্বান জানান।

উল্লেখ্য, গত জুলাই থেকে রাজধানীতে ডেঙ্গু রোগের প্রাদুর্ভাব দেখা দেয়। যা ইতিমধ্যেই মহামারীর রূপ ধারণ করে সারা দেশে ছড়িয়ে পড়েছে। ইতিমধ্যেই দেশের অধিকাংশ জেলায় প্রতিদিন নতুন নতুন রোগির সন্ধান মিলছে। ঢাকায় প্রতিদিন অসংখ্য রোগি হাসপাতালে ভীড় করছেন। ইতিমধ্যেই হাসপাতালে প্রচুর ডেঙ্গু রোগি ভর্তি হওয়ার কারণে নতুন রোগিরা ভর্তির জায়গা পাচ্ছেন না। ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত হয়ে প্রতিদিনই অসংখ্য মৃত্যুর খবর প্রকাশিত হচ্ছে। এর মধ্যে ডেঙ্গু রোগে সারাদেশে কমপক্ষে ৬০ জনের অধিক রোগি মারা যাওয়ার খবর পত্রিকায় এসেছে।

বর্তমানে সারাদেশের হাসপাতালে ভর্তিকৃত ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৬ হাজার ৫৮২ জন। শুধুমাত্র গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ১ হাজার ৬৮৭ জন রোগী।