Home ধর্মীয় প্রশ্ন-উত্তর বছরের মাঝে সম্পদের তারতম্য হলে যাকাত আদায়ের নিয়ম

বছরের মাঝে সম্পদের তারতম্য হলে যাকাত আদায়ের নিয়ম

প্রশ্ন: আমরা জানি, সাড়ে সাত তোলা স্বর্ণ বা সাড়ে বায়ান্ন তোলা রূপা বা সমপরিমাণ মুল্যের টাকা যদি এক বছর পর্যন্ত গচ্ছিত থাকে, তবে তার উপর যাকাত ফরয। কিন্তু বর্তমান বাজার মূল্যের হিসেবে এতদুভয়ের মধ্যে বিরাট পার্থক্য। তাহলে টাকার অংকে ন্যূনতম কতটাকা এক বছর ব্যাপী থাকলে একজনের উপর যাকাত ফরয হবে? বছরের বিভিন্ন সময়ে জমা টাকার পরিমাণে তারতম্য থাকে। তাহলে কোন সময় থেকে যাকাত ফরয হওয়ার সময় শুরু ধরতে হবে এবং কোন সময়ের জমা টাকার উপর যাকাতের পরিমাণ হিসেব করতে হবে?
মুহাম্মদ কামরুল ইসলাম মোল্লা, সৈয়দনগর, শিবপুর, নরসিংদী।

জবাব: টাকার অংকে যাকাতের নিসাব নির্ণয়ের বেলায় স্বর্ণ ও রূপার মূল্যে অনেক ব্যবধান হলেও অসুবিধা নেই। কারণ, সেক্ষেত্রে রূপার মূল্যই ধর্তব্য। সুতরাং সাড়ে বায়ান্ন তোলা রূপার বাজার মূল্য নির্ণয় করে যত টাকা হবে- তাই হবে টাকার অংকে যাকাতের নিসাব। সে হিসেবে তার চল্লিশ ভাগের একভাগ বা তৎসমপরিমাণ অর্থ যাকাত আদায় করতে হবে। আর জমাকৃত টাকা যখন এই নিসাব পরিমাণে পৌঁছাবে, তখন থেকে পূর্ণ এক বছর অতিবাহিত হলেই যাকাত আদায় করতে হবে। প্রকাশ থাকে যে, এক নিসাবের বছর পূর্তির পর অন্তর্বর্তীকালীন সময়ে যত টাকা জমা হয়েছে সেগুলোর বছর পূর্তি না হলেও যাকাত আদায় করতে হবে। সাহেবে নেসাব তথা যাকাত আদায়ে উপযুক্ত ব্যক্তির যাকাত আদায়ের জন্য বছর শেষে সম্পদের স্থিত হিসাব ধর্তব্য হবে।

আরও বিস্তারিত জানতে দেখুন- হিদায়াহ্-১/১৮৫, ১৯৩, ফাত্ওয়ায়ে মাহমূদিয়্যাহ- ৩/৫০ পৃষ্ঠা।

জবাব লিখেছেন- মুফতী মনির হোসাইন কাসেমী
ফাযেলে- দারুল উলূম দেওবন্দ (দাওরা ও ইফতা), সিনিয়র মুহাদ্দিস ও মুফতি- জামিয়া মাদানিয়া বারিধারা, ঢাকা এবং উপদেষ্টা সম্পাদক- উম্মাহ ২৪ডটকম।

1 COMMENT

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.