Home কবিতা ‘গণরোষ’

‘গণরোষ’

0

।। সৌমিত বসু ।।

পাশের বাড়ির ছেলেটিকে তাড়া করে 
মেরে রেখে গেছে। পাশের বাড়ির।
আমার তেমন কোনো দুঃখ নেই।
আর তেমন দুঃখ কিকরেই বা হবে 
বিষয়টা তো পাশের বাড়ির।
খবরটা কাগজে পড়েছি, 
পড়েছি প্রতিবেশীদের ফেসবুক পোস্ট-এ 
তবু যেটুকু সহানুভূতি না জানালে নয়, 
যেটুকু না জানালে প্রগতিশীল খ্যাতি চলে যেতে পারে , সেটুকু জানিয়েছি
উচিৎ দূরত্ব থেকে, 
কারণ নিজের তো নয়, প্রতিবেশী, তাই।

এমন ঘটনা নিজের যে ছিলো না
তা কিন্তু নয় 
এভাবেই তাড়া করে ‘শ্রীরাম’ বলিয়ে নেওয়া 
এভাবেই তাড়া করে গণপিটুনির ইতিহাস 
এখনো জ্বলজ্বল করে চোখের ওপর 
তবুও হাজার হোক এবার তো প্রতিবেশী, 
 তাই সন্ধ্যা হলে রোজকার মতো 
ছেলে করে পড়াশুনো, মেয়ে যায় গানে।

অনেক রাতে মশারির ছাদে 
ছবি ভেসে ওঠে, ছেলে উর্দ্ধশ্বাসে
পেছনে পেছনে লাঠিয়াল, শাড়ি ছিঁড়ে মেয়ে একাকার।
অশুভ ইঙ্গিত ভেবে
সারারাত জেগে বসে থাকি, ভয়ে ভয়ে।

প্রতিবেশী ভেবে যদি আজও 
শান্ত হয়ে থাকি 
যদি না থমকে দাঁড়ায় 
স্বাভাবিক জীবনযাপন, হে অন্ধবীজ 
আমার সমস্ত ভান আগুনে পুড়িয়ে দাও।
আমি কবি নই, হৃদয়ঘাতক, পুত্রহন্তারক।

– সৌমিত বসু, ভারতর পশ্চিম বাংলার একজন শক্তিমান কবি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.