Home কবিতা কবিতা: ‘আমার চৈতন্যে’

কবিতা: ‘আমার চৈতন্যে’

0

।। মালেকা ফেরদৌস ।।

ফেলে আসা দিন
আমার চৈতন্যে কড়া নাড়ে আজও,
মায়াবী জোছনার মত নরম উষ্ণ ডানার পাখিরা
এখনো পাখার তরঙ্গ তুলে সচকিত করে তোলে
আমার চারপাশ
কখনো বা কুয়াশার শরীর গলে মিশে যায়
জলজ মেঘের ভেতর;
এখনো বিবশ চিত্তে একটি ছায়া
দীর্ঘ থেকে দীর্ঘতর হয়-
এক কিশোর বালক
অপাপবিদ্ধ একটি সবুজ অবয়ব
কেবল জেগে রয়।
বোধের অলিন্দ জাগে ছবির মতই
কোন শান্ত বিকেল
শুভ্র মরাল গ্রীবার স্বচ্ছতোয়া নদী
কীর্তনখোলা আরও অনেক নদীর পথ বেয়ে
সারি সারি কৃষকের নাও
ধানের গন্ধ লয়ে দক্ষিণ বাংলার হেমন্ত আসে,
হিমেল বাতাসে ঝড়ে পড়া
হিজলের হলুদ পাতা, মেঠোপথ
বট, বাবলার স্নিগ্ধ ছায়া, দিগন্তব্যাপী সর্ষের ক্ষেত,
আহা! কত দিন, কত দিন হয়নিকো দেখা
কুয়াশায় বসে থাকা মাছরাঙার
হঠাৎ দীঘির ঠাণ্ডা তরলে ঝাঁপ দেয়া,
স্মৃতির দুয়ারে আজও নিবিড় ছন্দে শিশির ঝরে
শব্দ পাই টুপটাপ সারারাত,
এই নগরীর লাজুক জোছনায়
কান পেতে শুনি তাই;
অলস মধ্যাহ্নের শূন্য পথ-ঘাট
নির্জন পুকুরের জলে লাল শাপলার ফুল
এখনো বিষণ্ন ফোটে
এখনো ধানের অঘ্রাণ
বাতাসে ও জলে
আমার চৈতন্যে কড়া নাড়ে বারবার,
তবুও ভালোই আছি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.