Home সোশ্যাল মিডিয়া ‘মা আমার’

‘মা আমার’

1

।। নওশেদ আলম ।।

মা! ছোট্ট একটি নাম। একেবারেই ছোট্ট। বলা যায়, প্রচলিত শব্দ ভাণ্ডারের বহুল ব্যবহৃত সবচেয়ে ছোট্ট শব্দ। কিন্তু এর মাঝে রয়েছে অফুরন্ত ভালোবাসা আর সীমাহীন মমতা।

মা! যিনি বাঁচতে শিখায়, হাসতে শিখায়, বসতে শিখায়, হাটতে শিখায়, কথা বলতে শিখায়। তিনি আমাদের আরো শিখায় কীভাবে সংগ্রাম করে চলতে হয়।

‘মা’ মানে হাজারো কষ্টের মাঝে সন্তানকে সুখের সাগরে ডুবিয়ে রাখা। রাতে না ঘুমিয়ে সন্তানের পাশে জেগে থাকা। সন্তানের কান্না শুনে শত কাজ ফেলে রেখে দৌড়ে তার পাশে আসা। নিজে ভিজা বিছানায় ঘুমিয়ে সন্তানকে শুকনো বিছানায় রাখা। ক্ষুধার যন্ত্রণায় নিজের পেটে পাথর বেঁধে হলেও সন্তানের মুখে আহার গুঁজে দেওয়া। গভীর রজনীতে সন্তানের কল্যাণ কামনায় চোখের জলে বুক ভাসানো।

পৃথিবীতে প্রতিটি সন্তানের কাছে ‘মা’ বড় আরাধ্য। আমার জীবনেও ‘মা’ সবচেয়ে প্রিয় মানুষ। মায়ের স্নেহ, আদর আর মমতায় আমি বড় হয়েছি। মায়ের স্নেহরাজি আজও আমার অন্তরে প্রবাহমান। মায়ের স্নেহভরা মুখখানি যখনই চোখের সামনে ভেসে ওঠে, মনে হয় এখুনি মায়ের কাছে ছুটে যাই।

জন্মলগ্ন থেকে পরিণত বয়স পর্যন্ত প্রতিটি ধাপে মা কতই না যত্ন করে আমাকে গড়ে তুলেছেন। সব সময় আমার কল্যাণ কামনায় নিজেকে ব্যাপৃত রেখেছেন। মাকে ছাড়া আমি এক মুহূর্তও থাকতে পারতাম না। শৈশবের সেই দিনগুলোর কথা মনে পড়লে বুকের ভিতরটা হু হু করে কেঁদে ওঠে। দু’ চোখ সিক্ত হয়ে আসে। হৃদয় দিয়ে অনুভব করি মাতৃত্বভরা মমতাময়ী মায়ের কোমল স্মৃতিগুলো।

লেখাপড়ার প্রয়োজনে বছরের অধিকাংশ সময় এই মমতাময়ী মা থেকে দূরে থাকতে হয়। তবুও মায়ের ভলোবাসায় কোন কমতি নেই। আমি আমার মাকে অনেক ভালোবাসি। নিজের থেকেও বেশি। আল্লাহ এবং তার রাসূল (সা.)এর পরেই মাকে বেশি ভালোবাসি।

মা! তুমি আমার স্বপ্ন। আমার সাধনা। আমার পৃথিবী। মা! তোমাকে অনেক ভালোবাসি…। তোমার ভালোবাসার তুলনা হয় না। সব সময় ভালো থাকুক আমার মা। পৃথিবীর প্রতিটি মা’ই ভালো থাকুক।
তোমার নাড়ি ছিঁড়ে
পৃথিবীতে এসেছি,
তাই যত দূরেই যাই,
তোমার কাছেই থাকি মা।

লেখক: ছাত্র- আরবী সাহিত্য বিভাগ, জামিয়া মাদানিয়া বারিধারা, ঢাকা।

1 COMMENT

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.