Home ধর্মীয় প্রশ্ন-উত্তর অনুমতি না নিয়ে কারো কথাবার্তা বা ফোনালাপ রেকর্ড করা সম্পর্কে ইসলামের বিধান

অনুমতি না নিয়ে কারো কথাবার্তা বা ফোনালাপ রেকর্ড করা সম্পর্কে ইসলামের বিধান

0

মুহাম্মদ জসীম উদ্দীন, নাগেশ্বরী, কুড়িগ্রাম।
প্রশ্ন:
মাননীয় মুহতারাম মুফতী সাহেব, কারো কথাবার্তা অনুমতি গ্রহণ ব্যতীত গোপনে রেকর্ড করা জায়েয হবে কি?

উত্তর: ফিক্বাহশাস্ত্রের নির্ভরযোগ্য কিতাবাদি অধ্যয়নে প্রমাণিত হয় যে, কারো ব্যক্তিগত কথাবার্তা, ফোনালাপ বা কোনো বিশেষ মজলিসের আলাপ-আলোচনা অনুমতি ব্যতীত রেকর্ড করা জায়েয হবে না। কেননা, নবীকূলের শিরোমণি হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ইরশাদ করেছেন, “মজলিসের আলাপ-আলোচনা আমানত স্বরূপ”। (তিরমীযী- ২/১৭ পৃষ্ঠা)।

অন্যদিকে কোনো কিছু রেকর্ড করা হয় অন্যের কাছে পৌঁছানোর জন্যে। আর কারো ব্যক্তিগত কথাবার্তা, ফোনালাপ বা কোনো বিশেষ মজলিসের আলাপ-আলোচনা অনুমতি ব্যতীত অন্যের কাছে পৌঁছানো উক্ত হাদীসের নির্দেশনা মতে আমানতের খেয়ানত বলে সাব্যস্ত হবে। কুরআনে কারীমে ইরশাদ হয়েছে, ‘আল্লাহ তাআলা খিয়ানতকারীকে পছন্দ করেন না’। (সূরা আনফাল- ৫৮)।

অতএব, কারো ব্যক্তিগত কথাবার্তা, ফোনালাপ বা কোনো বিশেষ মজলিসের আলাপ-আলোচনা অনুমতি ব্যতীত কখনোই রেকর্ড করা যাবে না। পক্ষান্তরে ওয়ায-নসীহত রেকর্ড করতে অনুমতি গ্রহণের প্রয়োজন নেই। কারণ, অপরের কাছে পৌঁছানোর জন্যেই তো ওয়ায-নসীহত করা হয় এবং ওয়ায-নসীহতের মজলিস সর্বসাধারণের জন্য উন্মুক্ত থাকে।

জবাব লিখেছেন- মুফতী মনির হোসাইন কাসেমী
ফাযেলে- দারুল উলূম দেওবন্দ (দাওরা ও ইফতা), সিনিয়র মুহাদ্দিস ও মুফতি- জামিয়া মাদানিয়া বারিধারা, ঢাকা এবং উপদেষ্টা সম্পাদক- উম্মাহ ২৪ডটকম।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.