Home ইতিহাস ও জীবনী স্মৃতির মিনারে দাঁড়িয়ে থাকা এক মহীরুহ আল্লামা মুফতি ফজলুল হক আমিনী (রাহ.)

স্মৃতির মিনারে দাঁড়িয়ে থাকা এক মহীরুহ আল্লামা মুফতি ফজলুল হক আমিনী (রাহ.)

0

।। মাওলানা জুনায়েদ আল হাবীব ।।

মুফতী আমিনী ছিলেন এমনই এক সাহসী ব্যক্তি যে, তাঁর সাহসী উচ্চারণ ছাড়া কোনো আন্দোলন চাঙ্গা হতো না। আন্দোলনের মঞ্চে সবাই খুঁজে ফিরতেন মুফতী আমিনীকে। প্রতীক্ষায় থাকতেন তাঁর বলিষ্ঠ আহ্বানের। যে কোনো আন্দোলন-সংগ্রামকে সফল করার ম্যাজিক জানা ছিলো তাঁর। তিনি কোনো আন্দোলনের ডাক দিলে তা সাধারণত সফল হতোই। এজন্য আন্দোলনের ময়দানে মুফতী আমিনীই ছিলেন সবার আস্থার জায়গা। তিনি ডাকলে দল-মত নির্বিশেষে সবাই ছুটে আসতেন। দেশ ও জাতির স্বার্থে কোনো আন্দোলনের সূচনা করলে এক সময় তাতে এসে সবাই যোগ দিতেন।

ঐতিহাসিক এ তারিখটির কথা স্মরণ হলেই অশ্রুসিক্ত হয় চক্ষুদ্বয়। দেশ জাতির ক্রান্তিকালের মহান সাহসী অভিভাবক, আলেম সমাজের অন্যতম উজ্জ্বল নক্ষত্র আল্লামা মুফতি ফজলুল হক আমিনীর (রহ.) চিরবিদায়ের কথাই বলছিলাম। স্মৃতির মিনারে দাঁড়িয়ে থাকা এক মহীরুহ আল্লামা মুফতি ফজলুল হক আমিনী (রাহ.) ২০১২ সালের ১২ ডিসেম্বর চিরদিনের জন্য নশ্বর এ পৃথিবী থেকে চিরবিদায় নিয়ে না ফেরার জগতে গমন করেন। আজ সেই ঐতিহাসিক তারিখটি স্মৃতিতে বারবার তাড়িত করে…।

মুফতী আমিনী (রাহ.) ছিলেন মেধাবী ও সংগ্রামী একজন আলেম। রাজনৈতিক অঙ্গনে বিচরণের কারণে তাঁর আচরণে অনেক সময় একটা ক্যাজুয়াল ভাব বিরাজ করতো। খোলামেলা ভাষায় বক্তব্য দিতেন। অনেক সময় বয়ানের মধ্যেও হেসে উঠতেন। যা দেখলে অনেক সময় তাঁকে গভীর মনের ও চিন্তার মানুষ বলে মনে হতো না। কিন্তু যারা জানেন তারা জানেন যে, তিনি কেবল হাদীসের দরস দেয়ার প্রস্তুতিই নয়, একজন অধ্যয়নপাগল মানুষ ছিলেন। প্রতিবছর ইসলামী জ্ঞান, দর্শন, ফিকহ ও চিন্তাধারা বিষয়ে নতুন প্রকাশিত আরবি-উর্দু-ফার্সির বহু কিতাব কার্টন ধরে ধরে তিনি কিনে আনাতেন। ইসলাম বিষয়ে আলোচিত নতুন প্রকাশিত কোনো গ্রন্থ তার অপঠিত থাকতো না।

মহান আল্লাহ মর্দে মুজাহিদ মুফতি আমিনী (রাহ.)কে জান্নাতের সর্বোচ্চ মাকামে সমাসীন রাখুন। আমিন!

লেখক: আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন মুফাসসিরে কুরআন ও প্রিন্সিপ্যাল- জামিয়া কাসিমিয়া আশরাফুল উলূম, ঢাকা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.