Home রাজনীতি রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব ও পূর্ণ নিরাপত্তার নিশ্চয়তা দিয়েই মিয়ানমার ফেরত নিতে হবে: জমিয়তে...

রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব ও পূর্ণ নিরাপত্তার নিশ্চয়তা দিয়েই মিয়ানমার ফেরত নিতে হবে: জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ

0

জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী বলেছেন, নিপীড়ন ও নির্যাতনের শিকার হয়ে প্রাণ বাঁচাতে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গারা মিয়ানমারের বৈধ নাগরিক। তারা পূর্ব পুরুষ থেকে মিয়ানমারে বসবাস করে আসছে। তাদেরকে সম্পূর্ণ অন্যায় ও জুলুমের শিকারে পরিণত করে দেশছাড়া করা হয়েছে। মিয়ানমার সরকার তাদেরকে বৈধ নাগরিকত্ব ও পূর্ণ নিরাপত্তার নিশ্চয়তা দিয়েই ফেরত নিতে হবে। অন্যথায় মিয়ানমারের উপর আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সহযোগিতা নিয়ে প্রবল চাপ তৈরি করতে হবে।

আল্লামা নূরহোসাইন কাসেমী গতকাল ১৬ আগষ্ট বৃহস্পতিবার বাদ যোহর পল্টনস্থ দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ছাত্র জমিয়ত বাংলাদেশ ঢাকা মহানগরীর কাউন্সিল অধিবেশনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাসমূহ বলেন ।

আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী আরো বলেছেন, সমগ্র বিশ্ববাসী মিয়ানমারের এ অমানুষিক নির্যাতনের প্রতিবাদ করেছে। জাতিসংঘ সহ সকল আন্তর্জাতিক সংস্থা রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব বহাল রেখে তাদের জীবনের নিরাপত্বা নিশ্চিত করে স্বদেশে ফেরত নিতে মিয়ানমার সরকারের উপর চাপ সৃষ্টি করে আসছে। কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্য, আমাদের দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলীর নেতৃত্বে সম্প্রতি মিয়ানমার সফরকরা প্রতিনিধি দল রোহিঙ্গাদের পরিচয়পত্র থেকে ‘মিয়ানমারের নাগরিক’শব্দটি তুলে দেওয়ার ব্যাপারে মিয়ানমার সরকারকে সম্মতি দিয়েছে। বাংলাদেশ সরকারের এ সম্মতি আত্মঘাতি সিদ্ধান্ত ছাড়া অন্য কিছু নয়।

আল্লামা কাসেমী এ সিদ্ধান্তের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ করে বলেন, এ হঠকারী সিদ্ধান্ত সমগ্র মুসলিম বিশ্বকে কেবল হতাশই করেনি রীতিমতো গোটা মুসলিম বিশ্বের অন্তরে আগুন জ্বালিয়ে দিয়েছে। তিনি বলেন, রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব বহাল রেখেই তাদেরকে মিয়ানমারে ফিরত নিতে হবে। রোহিঙ্গারা রাখাইন রাজ্যের ভাসমান মানুষ ছিল না, তারা রাখাইন রাজ্যের স্থায়ীবাসিন্দা, বৈধ নাগরিক। এনভিসিতে রোহিঙ্গাদের পরিচয় বাঙ্গালী হতে পারে না। এনভিসিতে রোহিঙ্গাদের পরিচয় বাঙ্গালী দিয়ে, মিয়ানমার সরকার রোহিঙ্গাদের বৈধ নাগরিকক্ত হরণের একটি সুগভীর ষড়যন্ত্রে মেতে উঠেছে।

আল্লামা কাসেমী আরো বলেন, বাংলাদেশ সরকার এ ষড়যন্ত্রে পা দিয়ে আমাদেরকে লজ্জিত করেছে। ন্যায়, ইনসাফ ও মানবিকতার জায়গা থেকে বাংলাদেশ সরকার এ ধরনের আত্মঘাতি সিদ্ধান্ত নিতে পারে না। অভিলম্বে এ সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করে রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব বহাল রেখে তাদেরকে স্ব দেশে স্বসম্মানে ফেরত পাঠানোর ব্যবস্থা করতে হবে। অন্যথায় জনগণ এর জোর প্রতিবাদে শামিল হবে।

মহানগর ছাত্র জমিয়তের সভাপতি মাওলানা বুরহানউদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কাউন্সিলে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের সহসভাপতি মাওলানা আব্দুর রব ইউসূফী, যুগ্মমহাসচিব মাওলানা মঞ্জুরুল ইসলাম আফেন্দী, মাওলানা বাহাউদ্দিন যাকারিয়া, প্রচার সম্পাদক মাওলানা জয়নুল আবেদীন, অফিস সম্পাদক মাওলানা আব্দুল গাফফার এবং প্রধান বক্তা হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ছাত্র জমিয়ত বাংলাদেশের সভাপতি মাওলানা সাইফুর রহমান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.