Home শীর্ষ সংবাদ জাতীয় প্রেসক্লাবে বিএনপির মানববন্ধনে নেতাকর্মীদের ঢল: নির্বাচনের আগেই খালেদার মুক্তি দাবী

জাতীয় প্রেসক্লাবে বিএনপির মানববন্ধনে নেতাকর্মীদের ঢল: নির্বাচনের আগেই খালেদার মুক্তি দাবী

0
জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বিএনপির মানববন্ধনে বিপুল নেতাকর্মীর অংশগ্রহণ। ছবি- সংগৃহীত।

বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সুচিকিৎসার দাবিতে বিএনপির মানববন্ধন করেছে। আজ সোমবার ঢাকায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বেলা ১১টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়। মানববন্ধনে বিএনপি ও এর বিভিন্ন অঙ্গ এবং সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা যোগ দিয়েছেন। দলের কেন্দ্রীয় ও সিনিয়র নেতৃবৃন্দ মানববন্ধনে উপস্থিত শরীক ছিলেন। জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সারিবদ্ধভাবে কয়েক লাইনে বিভক্ত হয়ে লাইনে দাঁড়ান নেতাকার্মীরা।

মানববন্ধনে বিএনপির ও বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দের মধ্যে- মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, নজরুল ইসলাম খান, মোহাম্মদ শাহজাহান, আব্দুল্লাহ আল নোমান, রুহুল আলম চৌধুরী, শামসুজ্জামান দুদু, আমান উল্লাহ আমান, খায়রুল কবির খোকন, মীর সরফত আলী সপু, সহ-প্রশিক্ষণ বিষয়ক সম্পাদক ড. মোর্শেদ হাসান খান, মোস্তাফিজুর রহমান বাবু, মাদারীপুরের শিবচর উপজেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ইয়াজ্জেম হোসেন রোমানসহ কয়েক হাজার নেতাকর্মী অংশ নেন।

মানববন্ধনে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, আগামী সংসদ নির্বাচনের আগেই খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিতে হবে। তাকে কারাগারে রেখে এ দেশে কোনো নির্বাচন হবে না। মির্জা ফখরুল বলেন, তফসিল ঘোষণার আগে সরকারকে পদত্যাগ করতে হবে, নিরপেক্ষ সরকার গঠন করতে হবে, সংসদ ভেঙে দিতে হবে, সেনা মোতায়েন করতে হবে এবং নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠন করতে হবে। এ ছাড়া দেশে কোনো নির্বাচন হবে না, জনগণ হতে দেবে না।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, বর্তমান যে দানব সরকার দেশের জনগণের ওপর চেপে বসেছে, তাদের থেকে মুক্তি পেতে দরকার সব রাজনৈতিক দল ও সংগঠনের ইস্পাতকঠিন ঐক্য। তিনি বলেন, আজ আমাদের সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। সব রাজনৈতিক দল ও সংগঠনকে নিজ নিজ অবস্থান থেকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে এ সরকারের বিরুদ্ধে কঠোর আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। জনগণের দাবি আদায় করতে হবে। অপশাসনকে পরাজিত করতে হবে। জাতিকে মুক্তি দিতে হবে।

‘সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে এ দানবকে সরাতে হবে- এর কোনো বিকল্প নেই। তাই গণতন্ত্রমনা সব রাজনৈতিক দলকে এক হতে হবে। আসুন, সবাই ঐক্যবদ্ধ হই, গণতন্ত্রকে মুক্ত করি এবং মানুষের ভোটাধিকার ফিরিয়ে দিই।’

মির্জা ফখরুল বলেন, আজকে আমাদের নেত্রী খালেদা জিয়া আট মাস কারারুদ্ধ। সরকার অন্যায়ভাবে মিথ্যা মামলায় তাকে আটকে রেখেছে। উচ্চ আদালত তাকে জামিন দিলেও সরকার একটির পর একটি মিথ্যা মামলা দিয়ে আটকে রাখছে। তারা চায়, বিএনপি ও দেশ নেত্রীকে বাইরে রেখে নির্বাচন করতে।

তিনি বলেন, খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিতে হবে। এটি তার প্রাপ্য। আমরা সরকারের কাছে বা কারো কাছে কোনো দয়াভিক্ষা চাইছি না। দেশের একজন সম্মানিত নাগরিক হিসেবে তার সাংবিধানিক অধিকার অবশ্যই দিতে হবে।

মির্জা ফখরুল বলেন, আওয়ামী লীগ এখন সন্ত্রাসী সরকারে পরিণত হয়েছে। তাই এদের থেকে মুক্তি পেতে দরকার ইস্পাতকঠিন ঐক্য।

এদিকে বিএনপির মানববন্ধন ঘিরে পুলিশ ও অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনী প্রেসক্লাবের আশেপাশে কঠোর নিরাপত্তা বল গড়ে তোলেছে। উল্লেখ্য, গত ৮ ফেব্রুয়ারি এক মামলায় সাজাপ্রাপ্ত হয়ে কারাগারে বন্দী রয়েছেন খালেদা জিয়া। তার মুক্তি দাবিতে ছয় মাসেরও বেশি সময় ধরে বিভিন্ন শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালন করে আসছে বিএনপিসহ বিভিন্ন অঙ্গ-সংগঠন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.